Learn Arabic

Pages : 1 2 3
Page 1

لُغَةٌ
ভাষা

আল্লাহ তা'আলা প্রথম মানুষ আদম (আঃ) কে সৃষ্টি করেছেন এবং তিনি তাকে ভাষা সহ তার জন্য যা প্রয়োজন তার সবকিছুই তাকে দিয়েছেন এবং তার থেকে সকল মানুষ সৃষ্টি করেছেন। এ ভাবে আল্লাহ তায়ালা মানুষ সৃষ্টি করেছেন এবং তিনি তাদেরকে ভাষাও শিক্ষা দিয়েছেন। অতএব মানুষ যা বলে বা লিখে মনের ভাব প্রকাশ করে তাকে ভাষা বলে। পৃথিবীতে অনেক ভাষা আছে, যথা- আরবী, বাংলা, ইংরেজী, উর্দু, হিন্দী, ফার্সি ইত্যাদি। আমরা বাংলাদেশী, আমাদের মাতৃভাষা বাংলা।

اَللُّغَةُ الْعَرَبِيَّةُ وَضَرُوْرِيَّتُهَا
আরবী ভাষা ও ইহার প্রয়োজনীয়তা

আরবী পৃথিবীর শ্রেষ্ঠ ভাষা সমূহের মধ্যে অন্যতম। মহাগ্রন্থ আল-কুরআন আরবী ভাষায় অবতীর্ণ হয়েছে। মহানবী সাল্লাল্লাহু'আলাইহি ওয়া সাল্লাম আরবী ভাষী ছিলেন। তাঁর হাদীসের ভাষাও আরবী। এছাড়া তাফসীর ও ইসলামী আইনকানুন সহ সমস্ত গুরুত্বপূর্ণ সহীহ কিতাবসমূহ আরবী ভাষায় রচিত ও সালাতে দুয়া দরূদ কুরআন তিলওয়াত আরবীতেই আদায় করতে হয়। সুতরাং আন্যতম ইবাদত সালাত আদায় করতে, কুরআন ও হাদীস সম্পর্কে পূর্ণ জ্ঞান অর্জন করতে হলে আরবী ভাষা শিক্ষা করা একান্ত আবশ্যক।

اَلْقَوَاعِدُ وَالْقَوَاعِدُ الْعَرَبِيَّةُ
ব্যাকরণ ও আরবী ব্যাকারণ

যে কোন ভাষা শুদ্ধরূপে লিখতে পড়তে ও বলতে হলে কতকগুলো নিয়ম-কানূন পালন করতে হয়।
আর যে বিদ্যা অর্জন করলে ভাষা শুদ্ধরূপে লিখতে, পড়তে ও বলতে পারা যায় তাকে اَلْقَوَاعِدُ বা ব্যাকারণ বলে।
আর যে বিদ্যা অর্জন করলে আরবী ভাষা শুদ্ধরূপে লিখতে, পড়তে ও বলতে পারা যায় তাকে اَلْقَوَاعِدُ الْعَرَبِيَّةُ বা আরবী ব্যাকরণ বলে।

আরবী ব্যাকরণ চারভাগে বিভক্ত যথা- ১। عِلْمُ الْاِمْلَاَءِ বা বর্ণমালা প্রকরণ ২। عِلْمُ الصَّرْفِ বা শব্দ প্রকরণ ৩। عِلْمُ النَّحْوِ বা বাক্য প্রকরণ ৪। عِلْمُ الْعَرُوْضِ বা ছন্দ প্রকরণ।
আমাদের এ পুস্তকে শুধু عِلْمُ الصَّرْفِ বা শব্দ প্রকরণ সম্পর্কে আলোচনা করা হবে।

عِلْمُ الصَّرْفِ وَمِيْزَانُ الصَّرْفِ
শব্দ প্রকরণ ও শব্দের মাপকাঠি

عِلْمُ الصَّرْفِ – (ইলমুস্ সরফ) এর পরিচয়ঃ
صَرْفٌ শব্দের অর্থ ঘুরানো, ফিরানো বা রূপান্তর করা। আর যে বিদ্যা শিখলে আরবী শব্দের গঠন ও রূপান্তর করা যায় উহকে عِلْمُ الصَّرْفِ বলে।
غَرْضٌ উদ্দেশ্যঃ আরবী ভাষা বলতে লিখতে ও বুঝতে আরবী শব্দকে ভুলত্রুটি মুক্ত রাখাই عِلْمُ الصَّرْفِ এর উদ্দেশ্য।
مَوْضُوْعٌ বা আলোচ্য বিষয়ঃ আরবী শব্দাবলী عِلْمُ الصَّرْفِ আলোচ্য বিষয়।
مِيْزَان الصَّرْفِ (মীজানুস্ সরফ) – এর পরিচয়।
"মিযানুস সরফ" সরফ শিক্ষার একটি প্রাথমিক কিতাব। مِيْزَانٌ শব্দের অর্থ মাপকাঠি, পরিমাপক বা দাঁড়িপাল্লা। দাঁড়িপাল্লা দ্বারা বিভিন্ন দ্রব্যসামগ্রী ওজন করা হয়। অনুরূপ ভাবে مِيْزَانُ الصَّرْفِ দ্বারা আরবী শব্দাবলী পরিমাপ করে ঠিক করা হয় কোনটি কোন ধরণের কোন পরিমাপের শব্দ। আমরা কোন শব্দ পরিমাপ করে জানতে পারি- ইহা কোন বচন, কোন পুরুষ, কোন লিঙ্গ ইত্যাদি। সুতরাং আরবী শব্দের পূর্ণাঙ্গ জ্ঞান অর্জন করতে হলে "মীযানুস সরফ" পাঠ করা অত্যাবশ্যক।

كَلِمَةٌ – শব্দ

عِلْمُ الصَّرْفِ – এর মূল আলোচনা বিষয় হচ্ছে كَلِمَةٌ আরবী বর্ণমালা পরাস্পর মিলিত হয়ে যে অর্থবোধক শব্দ গঠিত হয় তাকে كَلِمَةٌ বলে। যথা- كِتَابٌ– পুস্তক, كَتَبَ লিখল, مِنْ হইতে ইত্যাদি।

كَلِمَةٌ তিন প্রকার- ১। اِسْمٌ (বিশেষ্য, বিশেষণ, সর্বনাম) ২। فِعْل (ক্রিয়া) ৩। حَرْف (অব্যয়)। প্রত্যেক প্রকারের সংজ্ঞা ও উদাহরণ নিম্নে পেশ করা হল-

১। اِسْمٌ- যে কালিমা দ্বারা কোন ব্যক্তি, বস্তু, প্রাণী, স্থান বা গুণের নাম বুঝায় এবং কোন কালের সাথে সম্পর্ক রাখে না তাকে اِسْمٌ বলে। যথা- زَيْدٌ – قَلَمٌ – فَرَسٌ – دَاكَا ইত্যাদি।

২। فعل- যে কালিমা দ্বারা অতীত, বর্তমান বা ভবিষ্যতকালে কোন কাজ করা বা হওয়া বুঝা যায় তাকে فعل বলে। যথা- نَصَرَ – সহায্য করল, يَنْصُرُ – সহায্য করছে বা করবে।

৩। حَرْف – যে كَلِمَة বা শব্দ اِسْمٌ অথবা فعل এর সহিত মিলিত না হয়ে নিজের অর্থ প্রকাশ করতে পারে না তাকে حَرْف বলে। যথা- مِنْ -হতে, على উপর, فِى – মধ্যে ইত্যাদি।

প্রকাশ থাকে যে فعل সমূহ প্রাথমিক ভাবে দুই ভাগে বিভক্ত। যথ-
১। اَفْعَالُ مُتَصَرِّفَة (রূপান্তরশীল ক্রিয়া) – যে সকল فعل বিভিন্ন ভাবে تَصْرِيْف – বা রূপান্তরিত হয় তাদেরকে افعال متصرف বলে। যথা- كَتَبَ – يَكْتُبُ – أُكْتُبْ
২। اَفْعَالُ غَيْر متصرفة (রূপান্তরহীন ক্রিয়া) যে সকল فعل বিভিন্নভাবে রূপান্তরিত হয় না তাদেরকে افعال غير متصرفة বলে। যথা- نِعْمَ – بِئْسَ ইত্যাদি। এই কিতাবে শুধু افعال متصرفة বা রূপান্তশীল ক্রিয়া সম্পর্কে আলোচনা করা হবে।

اَفْعَالُ مُتَصَرِّفَةٌ
রূপান্তরশীল ক্রিয়াপদ

زَمَانٌ বা কালের সহিত افعال متصرفة (রূপান্তরশীল ক্রিয়া) এর সম্পর্কের দিক দিয়া উহা তিনভাগে বিভক্ত। যথা- ১। مَاضِى (অতীত কাল), ২। ٌمُسْتَقْبِل (ভবিষ্যতকাল), ৩। ٌحَال (বর্তমান কাল)

১। ماضى যে فعل দ্বারা অতীতকালে কোন কাজ করা বা হওয়া ইত্যাদি বুঝা যায় তাকে فعل ماضى বলে। যথা-ضَرَبَ -সে প্রহার করল।, سَمِعَ -সে শ্রবণ করল।

২। مستقبل – যে فعل দ্বারা ভবিষ্যতকালে কোন কাজ করা বা হওয়া বুঝায় তাকে فعل مستقبل বলে। যথা يَنْصُرُ সে সহায্য করবে। يَفْتَحُ সে বিজয় লাভ করবে, ইত্যাদি।

৩।حال – যে فعل – দ্বারা বর্তমান কালে কোন কাজ করা বা হওয়া বুঝায় উহাকে فعل حال বলে। যথা- يَنْصُرُ – সে সহায্য করছে।
উল্লেখ্য যে, আরবীতে حال مستقبل ক্রিয়াপদের গঠন ও প্রকৃতি একই রকম। উভয়কে একত্রে فعل مضارع বলে। فعل مضارع এর মধ্যে বর্তমান ও ভবিষ্যতকালের অর্থ নিহিত থাকে। যথা يَكْتُبُ – সে লিখছে বা লিখবে।

اَصِّيْغَةُ وَمَا يَتَعَلَّقُ بِهَا
সীগাহ এবং উহার সংশ্লিষ্ট বিষয়াদি

شَخْصٌ – পুরুষঃ
শব্দের বিভিন্ন প্রকার রূপকে صِيْغَة (সীগাহ) বলে। افعال متصرقة বা রূপান্তরযোগ্য ক্রিয়াসমূহের আঠারটি صيغة (সীগাহ) বা রূপ হয়ে থাকে। প্রত্যেকটি সীগাহ কোন না কোন شخص পুরুষের সাথে সম্পর্কযুক্ত। شخص বা পুরুষ বলতে এমন শব্দকে বুঝায় যার মাধ্যমে বাক্যের অন্তর্গত বিভিন্ন শব্দের সম্বোধন এবং নাম ও সর্বনামের পরিচয় পাওয়া যায়। যথা-هُوَ – সে, اَنْتَ – তুমি, اَنَا – আমি, ইত্যাদি।
شخص বা পুরুষ তিন প্রকার, যথা –
(১) غائب (নাম পুরুষ) – যে শব্দ দ্বারা অনুপস্থিত ব্যক্তি বা বস্তুকে বুঝায় তাকে غائب বা নামপুরুষ বলে। যথা هُوَ – সে, هُمْ – তারা, ইত্যাদি।
(২) حَاضِرٌ (মধ্যম পুরুষ) – যে শব্দ দ্বারা উপস্থিত ব্যক্তি বা বস্তুকে বুঝায় তাকে حاضر বা (মধ্যম পুরুষ) বলে। যথা – اَنْتَ – তুমি, اَنْتُمْ – তোমরা (সকল), ইত্যাদি।
(৩) مُتَكَلِّم (প্রথম পুরুষ) – যে শব্দ দ্বারা সম্বোধনকারী নিজে অথবা আমি বা আমরা বুঝায় তাকে متكلم বা উত্তম পুরুষ বলে। যথা – اَنَا – আমি, نَحْنُ – আমরা।

جِنْسٌ – লিঙ্গঃ
যে শব্দ দ্বারা স্ত্রী বা পুরুষ বুঝা যায় তাকে جِنْسٌ বা লিঙ্গ বলে। লিঙ্গ দুই প্রকার, যথা –
(১) مُذَكَّرٌ (পুংলিঙ্গ) – যে শব্দ দ্বারা পুরুষজাতি বুঝায় তাদেরকে مذكر বলে। যথা – هُوَ – সে (একজন পুরুষ), اَخٌ – ভাই, اِبْنٌ – ছেলে।
(২) مُؤَنَّثٌ (স্ত্রী লিঙ্গ) – যে সকল শব্দের দ্বারা স্ত্রী জাতি বুঝায় তাদেরকে مؤنث বলে। যথা – أُخْتٌ – বোন, بِنْتٌ – কন্যা।

عَدَدٌ – বচনঃ
عَدَد অর্থ সংখ্যা বা পরিমাণ। যে শব্দ দ্বারা কোন ব্যক্তি বা বস্তুর সংখ্যা বা পরিমাণ বুঝায় তাকে عدد বলে। যথা – رَجُلٌ – একজন পুরুষ, رَجُلَانِ – দু'জন পুরুষ। عدد তিন প্রকার। যথা –
(১) وَاحِدٌ (একবচন) – যে শব্দ দ্বারা একটিমাত্র প্রাণী বা বস্তু বুঝায় তকে واحد বা একবচন বলে। যথা – هُوَ – সে একজন পুরুষ, قَلَمٌ – একটি কলম, كِتَابٌ – একটি পুস্তক।
(২) تَثْنِيَّةٌ (দ্বিবচন) – যে শব্দ দ্বারা দুটিমাত্র প্রাণী বা বস্তুকে বুঝায় তাকে تَثْنِيَّةٌ বা দ্বীবচন বলে। যথা – هُمَا – তারা দুইজন (পুরুষ বা স্ত্রী), قَلَمَانِ – দু'টি কলম, كِتَابَانِ – দু'টি পুস্তক।
(৩) جَمْعٌ (বহুবচন) – যে শব্দ দ্বারা দুই এর অধিক প্রাণী বা বস্তুকে বুঝায় তাকে جمع বা বহুবচন বলে। যথা – هُمْ – তারা সকল পুরুষ, اَقْلَامٌ – অনেক কলম, كُتُبٌ – অনেক পুস্তক।
উপরোল্লেখিত আলোচনা দ্বারা বুঝা গেল যে, افعال متصرفة এর অন্তর্ভুক্ত সীগাহগুলো পুরুষ, লিঙ্গ ও বচনভেদে বিভিন্নরূপ ধারণ করে। নিম্নে সীগার সহিত সংশ্লিষ্ট সকল বস্তুর সমন্বয় افعال متصرفة এর একটি চিত্র প্রদান করা হলো –

উপরের চিত্রে আমরা লক্ষ্য করি যে, افعال متصرفة এর সীগাহগুলো প্রথমঃ তিনভাগে বিভক্ত যথা- متكلم – حاضر – غائب তারপর তাদের প্রত্যেক প্রকার পুরুষ আবার দু'ভাগে বিভক্ত,ত যথা- مذكرمؤنث এদের প্রত্যেক প্রকার আবার তিন ভাগে বিভক্ত, যথা – جمع – تثنية – واحد অতএব সর্বমোট সীগার সংখ্যা দাড়াবে-

غائب (নাম পুরুষ) مذكر (পুংলিঙ্গ) ৩ টি
غائب (নাম পুরুষ) مؤنث (স্ত্রীলিঙ্গ) ৩ টি
حاضر (মধ্যম পুরুষ) مذكر (পুংলিঙ্গ) ৩ টি
حاضر (মধ্যম পুরুষ) مؤنث (স্ত্রীলিঙ্গ) ৩ টি
متكلم (উত্তম পুরুষ) مذكر (স্ত্রীলিঙ্গ) ৩ টি
متكلم (উত্তম পুরুষ) مؤنث (স্ত্রীলিঙ্গ) ৩ টি
মোট = ১৮ টি

এখানে উল্লেখ্য যে, واحد متكلم এর مذكرمؤنث এর জন্য মাত্র একটি সীগাহ ব্যবহৃত হয় এবং جمع متكلم এর সীগাটি تثنيةجمع এবং مذكر مؤنث এর জন্য একইরূপে ব্যবহৃত হয় বিধায় متكلم এর মাত্র দু'টি সীগাহ হয়ে থাকে। অতএব সীগার সংখ্যা দাঁড়ায় غائب এর ছয়টি, حاضر এর ছয়টি এবং متكلم এর ছয়টির পরিবর্তে দু'টি এই সর্বমোট ১৪ টি।
প্রকাশ থাকে যে, افعال متصرفة আবার দুই ভাগে বিভক্ত, যথা – (১) مَعْرُوْف (কর্তৃবাচ্য), (২) مَجْهُوْلٌ (কর্মবাচ্য)। তাদের প্রত্যেক প্রকার আবার দুই ভাগে বিভক্ত, যথা – (১) مُثْبِتٌ (হাঁ-বাচক), (২) مَنْفِىٌ (না-বাচক)। অতএব افعال متصرفة এর সর্বমোট চারটি بحث আছে।
(১) فعل مثبت معروف (২) فعل مثبت مجهول (৩) فعل منفى معروف (৪) فعل منفى مجهول

اَلتَّمْرِيْنُ
অনুশীলনী

১। ভাষা কাকে বলে? আরবী ভাষার প্রয়োজনীয়তা কি?
২। عِلْمُ الصَّرْفِ কাকে বলে? সরফের উদ্দেশ্য ও বিষয়বস্তু কি?
৩। كَلِمَة কাকে বলে? كَلِمَة কত প্রকার ও কি কি? প্রত্যেক প্রকারের উদাহরণ দাও।
৪। اَفْعَالُ مُتَصَرِّفَة কত প্রকার ও কি কি?
৫। সীগাহ সর্বমোট কয়টি ও কি কি?

فعل ماضى
অতীতকালীন ক্রিয়া

ইতিপূর্বে জানান হয়েছে যে, যে فعل দ্বারা অতীতকালে কোন কাজ করা বা হওয়া ইত্যাদি বুঝায় তাকে فعل ماضى বলে। যথা – فَعَلَ – সে করল, سَمِعَ সে শ্রবণ করল, كَرُمَ – সে সম্মানীত হল। فعل ماضى এর মধ্যের অক্ষরে বিভিন্ন সময় বিভিন্নরূপ হরকত হয়ে থাকে। যা উদাহরণে লক্ষ্য করা যায়। সময়ের তারতম্য অনুযায়ী فعل ماضى ছয় ভাগে বিভক্ত, যাথা –
১। ماضى مطلق বা সাধারণ অতীতকাল, যথা – فَعَلَ – সে করল।
২। ماضى قَرِيْبٌ বা নিকটবর্তী অতীতকাল, যথা – قَدْ فَعَلَ – সে করেছে।
৩। ماضى بَعِيْدٌ বা দূরবর্তী অতীতকাল, যথা – كَانَ فَعَلَ – সে করেছিল।
৪। ماضى اِسْتِمْرَارِىْ বা চলমান অতীতকাল, যথা – كَانَ يَفْعَلُ – সে করিতেছিল।
৫। ماضى شَكَّىْ বা সন্দেহসূচক অতীতকাল, যথা – لَعَلَّمَا فَعَلَ – সম্ভবতঃ সে করেছে।
৬। ماضى تَمَنَّائى বা আকাঙ্খাসূচক অতীতকাল, যথা – لَيْتَمَا فَعَلَ – হায়! সে যদি করত।
فعل ماضى এর সমূদয় প্রকার, সঙ্গা ও গঠন-প্রণালীসহ পর্যায়ক্রমে বর্ণনা করা হবে।

ماضى مطلق
সাধারণ অতীতকাল

সংজ্ঞাঃ যে فعل দ্বারা সাধারণভাবে অতীতকালে কোন কাজ করা বা হওয়া বুঝায় তাকে ماضى مطلق বলে। উদাহরণ – فَعَلَ – সে করল, ذَهَبَ – সে গেল, سَمِعَ – সে শ্রবণ করল।

اِثْبَاتْ فِعْلٌ مَاضِى مُطْلَقٌ مَعْرُوْف
হাঁ-বাচক কর্তৃবাচ্য সাধারণ অতীতকালীন ক্রিয়া

গঠন প্রণালীঃ مَصْدَر বা ক্রিয়ামূল হতে مَاضِى مُطْلَق গঠিত হয়, ثُلَاثِى বা তিন অক্ষর বিশিষ্ট مَصْدَر এর ف কালিমায় فَتَحَه এবং ع কালিমায় بَاب অনুযায়ী فَتَحه অথবা ضُمَّة অথবা كَسْرَة দিয়া ل কালিমায় فَتَحه দিলেই اثبات فعل ماضى مطلق معروف গঠিত হবে। সকল প্রকার ক্রিয়াকে আরবীতে فعل বলে। فعل এর অন্তর্গত ل – ع – ف এই তিনটি অক্ষরকে فعل এর মূল মাপকাঠি হিসাবে মনে করা হয়, তাই যে কোন فعل এর মূল অক্ষরগুলোর প্রথমটিকে ف কালিমা, মধ্যেরটিকে ع কালিমা, এবং শেষটিকে ل কালিমা বলা হয়।

اثبات فعل ماضى مُطْلَق معروف
হাঁ-বাচক কর্তৃবাচ্য সাধারণ অতীতকালীন ক্রিয়া
تصريف – রুপান্তর;   معنى – অর্থ;  صيغة – রূপ;  جنس – লিঙ্গ;  شخص – পুরুষ;  واحد – একবচন;  تثنية – দ্বিবচন;  جمع – বহুবচন
تصريف অর্থ صغية جنس شخص
فَعَلَ সে (একজন পুরুষ) করল واحد مذكر غائب
فَعَلَا তারা (দু'জন পুরুষ) করল تثنية
فَعَلُوْا তারা (সকল পুরুষ) করল جمع
فَعَلَتْ সে (একজন স্ত্রী) করল واحد مؤنث
فَعَلَتَا তারা (দু'জন স্ত্রী) করল تثنية
فَعَلْنَ তারা (সকল স্ত্রী) করল جمع
فَعَلْتَ তুমি (একজন পুরুষ) করলে واحد مذكر حاضر
فَعَلْتُمَا তোমরা (দু'জন পুরুষ) করলে تثنية
فَعَلْتُمْ তোমরা (সকল পুরুষ) করলে جمع
فَعَلْتِ তুমি (একজন স্ত্রী) করলে واحد مؤنث
فَعَلْتُمَا তোমরা (দু'জন স্ত্রী) করলে تثنية
فَعَلْتُنَّ তোমরা (সকল স্ত্রী) করলে جمع
فَعَلْتُ আমি (একজন পুরুষ/স্ত্রী) করলাম واحد مؤنث/مذكر متكلم
فَعَلْنَا আমরা (দুইজন/সকল পুরুষ/স্ত্রী) করলাম جمع/تثنية مؤنث/مذكر

إِثْبَات فِعْل مَاضِى مُطْلَق مَجْهُول
হাঁ-বাচক কর্মবাচ্য সাধারণ অতীতকালীন ক্রিয়া

সংজ্ঞাঃ যে হাঁ-বাচক সাধারণ অতীতকালী ক্রিয়ার فَاعِلٌ বা কর্তা জানা থাকে না তাকে إِثْبَات فِعْل مَاضِى مُطْلَق مَجْهُول বলে।
গঠন প্রণালীঃ إِثْبَات فِعْل مَاضِى مُطْلَق مَعْرُوف এর ف কালিমায় ضُمَّة বা পেশ এবং ع কালিমায় كَسْرَة বা যের দিলেই إِثْبَات فِعْل مَاضِى مُطْلَق مَجْهُول গঠিত হয়। ل কালিমায় فَتَحه বা যবর পূর্বের মতই বহাল থাকবে। যেমন- فَعَلَ হতে فُعِلَ – সে কৃত হল।

اثبات فعل ماضى مُطْلَق مَجْهُول
হাঁ-বাচক কর্মবাচ্য সাধারণ অতীতকালীন ক্রিয়া
تصريف – রুপান্তর;   معنى – অর্থ;  صيغة – রূপ;  جنس – লিঙ্গ;  شخص – পুরুষ;  واحد – একবচন;  تثنية – দ্বিবচন;  جمع – বহুবচন
تصريف অর্থ صغية جنس شخص
فُعِلَ সে (একজন পুরুষ) কৃত হল واحد مذكر غائب
فُعِلَا তারা (দু'জন পুরুষ) কৃত হল تثنية
فُعِلُوْا তারা (সকল পুরুষ) কৃত হল جمع
فُعِلَتْ সে (একজন স্ত্রী) কৃত হল واحد مؤنث
فُعِلَتَا তারা (দু'জন স্ত্রী) কৃত হল تثنية
فُعِلْنَ তারা (সকল স্ত্রী) কৃত হল جمع
فُعِلْتَ তুমি (একজন পুরুষ) কৃত হলে واحد مذكر حاضر
فُعِلْتُمَا তোমরা (দু'জন পুরুষ) কৃত হলে تثنية
فُعِلْتُمْ তোমরা (সকল পুরুষ) কৃত হলে جمع
فُعِلْتِ তুমি (একজন স্ত্রী) কৃত হলে واحد مؤنث
فُعِلْتُمَا তোমরা (দু'জন স্ত্রী) কৃত হলে تثنية
فُعِلْتُنَّ তোমরা (সকল স্ত্রী) কৃত হলে جمع
فُعِلْتُ আমি (একজন পুরুষ/স্ত্রী) কৃত হলাম واحد مؤنث/مذكر متكلم
فُعِلْنَا আমরা (দুইজন/সকল পুরুষ/স্ত্রী) কৃত হলাম جمع/تثنية مؤنث/مذكر

نفِى فعل ماضى مطلق معروف
না-বোধক কর্তৃবাচ্য সাধারণ অতীতকালীন ক্রিয়া

সংজ্ঞাঃ যে فِعْل দ্বারা সাধারণভাবে অতীতকালে কোন কাজ না করা বা না হওয়া বুঝায়, তাকে نَفِى فعل ماضى مطلق معروف বলে। যথা- مَا فَعَلَ সে করল না, مَا ضَرَبَ সে প্রহার করল না।
গঠন প্রণালীঃ نَفِى فعل ماضى مطلق معروف গঠন করতে হলে إِثْبات فِعْل مَاضِى مُطْلَق مَعْرُوف এর পূর্বে একটি না বোধক مَا বসাতে হয়। এই مَا আসার কারণে মূল ক্রিয়ার শব্দের কোন পরিবর্তন হয় না, কিন্তু অর্থের দিক দিয়ে হাঁ-বোধক অর্থ না-বোধক করে দেয়। যেমন- فَعَلَ হতে مَا فَعَلَ

نَفِى فعل ماضى مُطْلَق معروف
না-বোধক কর্তৃবাচ্য সাধারণ অতীতকালীন ক্রিয়া
تصريف – রুপান্তর;   معنى – অর্থ;  صيغة – রূপ;  جنس – লিঙ্গ;  شخص – পুরুষ;  واحد – একবচন;  تثنية – দ্বিবচন;  جمع – বহুবচন
تصريف অর্থ صغية جنس شخص
مَا فَعَلَ সে (একজন পুরুষ) করল না واحد مذكر غائب
مَا فَعَلَا তারা (দু'জন পুরুষ) করল না تثنية
مَا فَعَلُوْا তারা (সকল পুরুষ) করল না جمع
مَا فَعَلَتْ সে (একজন স্ত্রী) করল না واحد مؤنث
مَا فَعَلَتَا তারা (দু'জন স্ত্রী) করল না تثنية
مَا فَعَلْنَ তারা (সকল স্ত্রী) করল না جمع
مَا فَعَلْتَ তুমি (একজন পুরুষ) করলে না واحد مذكر حاضر
مَا فَعَلْتُمَا তোমরা (দু'জন পুরুষ) করলে না تثنية
مَا فَعَلْتُمْ তোমরা (সকল পুরুষ) করলে না جمع
مَا فَعَلْتِ তুমি (একজন স্ত্রী) করলে না واحد مؤنث
مَا فَعَلْتُمَا তোমরা (দু'জন স্ত্রী) করলে না تثنية
مَا فَعَلْتُنَّ তোমরা (সকল স্ত্রী) করলে না جمع
مَا فَعَلْتُ আমি (একজন পুরুষ/স্ত্রী) করলাম না واحد مؤنث/مذكر متكلم
مَا فَعَلْنَا আমরা (দুইজন/সকল পুরুষ/স্ত্রী) করলাম না جمع/تثنية مؤنث/مذكر

نَفِى فِعْل مَاضِى مُطْلَق مَجْهُول
না-বোধক কর্মবাচ্য সাধারণ অতীতকালীন ক্রিয়া

সংজ্ঞাঃ যে না-বাচক সাধারণ অতীতকালী ক্রিয়ার فَاعِلٌ বা কর্তা জানা থাকে না তাকে نَفِى فِعْل مَاضِى مُطْلَق مَجْهُول বলে। যথা- مَا فُعِلَ – সে কৃত হল না।
গঠন প্রণালীঃ إِثْبَات فِعْل مَاضِى مُطْلَق مَعْرُوف এর পূর্বে না-বোধক مَا বসাতে হবে। অতঃপর ف কালিমায় ضُمَّة বা পেশ এবং ع কালিমায় كَسْرَة বা যের না থাকিলে যের দিতে হবে এবং লাম কালিমা পূর্বের অবস্থায় রেখে দিলেই نَفِى فِعْل مَاضِى مُطْلَق مَجْهُول গঠিত হবে। যেমন- فَعَلَ হতে مَا فُعِلَ – সে কৃত হল না।

نَفِى فعل ماضى مُطْلَق مَجْهُول
না-বাচক কর্মবাচ্য সাধারণ অতীতকালীন ক্রিয়া
تصريف – রুপান্তর;   معنى – অর্থ;  صيغة – রূপ;  جنس – লিঙ্গ;  شخص – পুরুষ;  واحد – একবচন;  تثنية – দ্বিবচন;  جمع – বহুবচন
تصريف অর্থ صغية جنس شخص
مَا فُعِلَ সে (একজন পুরুষ) কৃত হল না واحد مذكر غائب
مَا فُعِلَا তারা (দু'জন পুরুষ) কৃত হল না تثنية
مَا فُعِلُوْا তারা (সকল পুরুষ) কৃত হল না جمع
مَا فُعِلَتْ সে (একজন স্ত্রী) কৃত হল না واحد مؤنث
مَا فُعِلَتَا তারা (দু'জন স্ত্রী) কৃত হল না تثنية
مَا فُعِلْنَ তারা (সকল স্ত্রী) কৃত হল না جمع
مَا فُعِلْتَ তুমি (একজন পুরুষ) কৃত হলে না واحد مذكر حاضر
مَا فُعِلْتُمَا তোমরা (দু'জন পুরুষ) কৃত হলে না تثنية
مَا فُعِلْتُمْ তোমরা (সকল পুরুষ) কৃত হলে না جمع
مَا فُعِلْتِ তুমি (একজন স্ত্রী) কৃত হলে না واحد مؤنث
مَا فُعِلْتُمَا তোমরা (দু'জন স্ত্রী) কৃত হলে না تثنية
مَا فُعِلْتُنَّ তোমরা (সকল স্ত্রী) কৃত হলে না جمع
مَا فُعِلْتُ আমি (একজন পুরুষ/স্ত্রী) কৃত হলাম না واحد مؤنث/مذكر متكلم
مَا فُعِلْنَا আমরা (দুইজন/সকল পুরুষ/স্ত্রী) কৃত হলাম না جمع/تثنية مؤنث/مذكر

অনুশীলনী – التَّمْرِينٌ

১।فعل ماضى কত প্রকার ও কি কি? প্রত্যেক প্রকারের পরিচয় দাও।
২।إثبات فعل ماضى مطلق معروف এর গঠন প্রণালী বর্ণনা কর।
৩।فعل এর মধ্যে কালিমা কয়টি ও কি কি?
৪।إثبات فعل ماضى مطلق مجهول – এর গঠন প্রণালী বর্ণনা কর।
৫। নিম্নলিখিত فعل দ্বারা ماضى مطلق معروفمجهول – এর রূপান্তর কর।
كَتَبَ (সে লিখল) ضَرَبَ (সে প্রহার করল)
৬।صيغة, অর্থ ও بحث বল।
فَعَلَ – مَا كَتَبَ – فُعِلُوا – مَا ضُرِبُوا – كَتَبْتُنَّ
৭। আরবী বলঃ
(ক) সে (একজন স্ত্রী) কৃত হল।
(খ) তারা (দু'জন পুরুষ) প্রহার করল।
(গ) আমরা (সকল পুরুষ) লেখলাম।
(ঘ) তোমরা (দু'জন পুরুষ) লেখলে না।
(ঙ) তারা (দু'জন স্ত্রী) লেখল।

إِثْبَات فِعْل مَاضِى قَرِيب مَعْرُوف
হাঁ-বোধক কর্তৃবাচ্য নিকটবর্তী অতীতকালীন ক্রিয়া

সংজ্ঞাঃ যে فِعْل দ্বারা সাধারণভাবে কোন কাজ এই মাত্র শেষ হয়েছে এবং তার ফল এখনো বাকী আছে বুঝায়, তাকে إِثْبَات فعل ماضى قَرِيب معروف বা নিকটবর্তী অতীতকাল বলে। যথা- قَدْ فَعَلَ সে করেছে, قَدْ ضَرَبَ সে প্রহার করেছে।
গঠন প্রণালীঃ إِثْبَات فعل ماضى مطلق معروف এর পূর্বে শুধু قَدْ বসাইলেই مَاضِى قَرِيب مَعْرُوف গঠিত হয়। যেমন- قَدْ فَعَلَ – সে করেছে।

إِثْبَات فعل ماضى قَرِيب معروف
হাঁ-বোধক কর্তৃবাচ্য নিকটবর্তী অতীতকালীন ক্রিয়া
تصريف – রুপান্তর;   معنى – অর্থ;  صيغة – রূপ;  جنس – লিঙ্গ;  شخص – পুরুষ;  واحد – একবচন;  تثنية – দ্বিবচন;  جمع – বহুবচন
تصريف অর্থ صغية جنس شخص
قَدْ فَعَلَ সে (একজন পুরুষ) করেছে واحد مذكر غائب
قَدْ فَعَلَا তারা (দু'জন পুরুষ) করেছে تثنية
قَدْ فَعَلُوْا তারা (সকল পুরুষ) করেছে جمع
قَدْ فَعَلَتْ সে (একজন স্ত্রী) করেছে واحد مؤنث
قَدْ فَعَلَتَا তারা (দু'জন স্ত্রী) করেছে تثنية
قَدْ فَعَلْنَ তারা (সকল স্ত্রী) করেছে جمع
قَدْ فَعَلْتَ তুমি (একজন পুরুষ) করেছ واحد مذكر حاضر
قَدْ فَعَلْتُمَا তোমরা (দু'জন পুরুষ) করেছ تثنية
قَدْ فَعَلْتُمْ তোমরা (সকল পুরুষ) করেছ جمع
قَدْ فَعَلْتِ তুমি (একজন স্ত্রী) করেছ واحد مؤنث
قَدْ فَعَلْتُمَا তোমরা (দু'জন স্ত্রী) করেছ تثنية
قَدْ فَعَلْتُنَّ তোমরা (সকল স্ত্রী) করেছ جمع
قَدْ فَعَلْتُ আমি (একজন পুরুষ/স্ত্রী) করেছি واحد مؤنث/مذكر متكلم
قَدْ فَعَلْنَا আমরা (দুইজন/সকল পুরুষ/স্ত্রী) করেছি جمع/تثنية مؤنث/مذكر

إِثْبَات فِعْل مَاضِى قَرِيب مَجْهُول
হাঁ-বোধক কর্মবাচ্য নিকটবর্তী অতীতকালীন ক্রিয়া

সংজ্ঞাঃ যে فِعْل দ্বারা কোন কাজ এইমাত্র সংঘটিত হয়েছে কিন্তু উক্ত فِعْل এর فَاعِلٌ বা কর্তা জানা থাকে না তাকে إِثْبَات فِعْل مَاضِى قَرِيب مَجْهُول বলে। যথা- قَدْ فُعِلَ – সে কৃত হয়েছে।
গঠন প্রণালীঃ إِثْبَات فِعْل مَاضِى قَرِيب مَعْرُوف এর ف কালিমায় ضُمَّة এবং ع কালিমায় كَسْرَة বা যের না থাকলে যের দিয়ে ل কালিমা পূর্বের অবস্থা বহাল রাখলে إِثْبَات فِعْل مَاضِى قَرِيب مَجْهُول গঠিত হবে। যেমন- قَدْ فَعَلَ হতে قَدْ فُعِلَ – সে কৃত হয়েছে।

إِثْبَات فعل ماضى قَرِيب مَجْهُول
হাঁ-বাচক কর্মবাচ্য নিকটবর্তী অতীতকালীন ক্রিয়া
تصريف – রুপান্তর;   معنى – অর্থ;  صيغة – রূপ;  جنس – লিঙ্গ;  شخص – পুরুষ;  واحد – একবচন;  تثنية – দ্বিবচন;  جمع – বহুবচন
تصريف অর্থ صغية جنس شخص
قَدْ فُعِلَ সে (একজন পুরুষ) কৃত হয়েছে واحد مذكر غائب
قَدْ فُعِلَا তারা (দু'জন পুরুষ) কৃত হয়েছে تثنية
قَدْ فُعِلُوْا তারা (সকল পুরুষ) কৃত হয়েছে جمع
قَدْ فُعِلَتْ সে (একজন স্ত্রী) কৃত হয়েছে واحد مؤنث
قَدْ فُعِلَتَا তারা (দু'জন স্ত্রী) কৃত হয়েছে تثنية
قَدْ فُعِلْنَ তারা (সকল স্ত্রী) কৃত হয়েছে جمع
قَدْ فُعِلْتَ তুমি (একজন পুরুষ) কৃত হয়েছ واحد مذكر حاضر
قَدْ فُعِلْتُمَا তোমরা (দু'জন পুরুষ) কৃত হয়েছ تثنية
قَدْ فُعِلْتُمْ তোমরা (সকল পুরুষ) কৃত হয়েছ جمع
قَدْ فُعِلْتِ তুমি (একজন স্ত্রী) কৃত হয়েছ واحد مؤنث
قَدْ فُعِلْتُمَا তোমরা (দু'জন স্ত্রী) কৃত হয়েছ تثنية
قَدْ فُعِلْتُنَّ তোমরা (সকল স্ত্রী) কৃত হয়েছ جمع
قَدْ فُعِلْتُ আমি (একজন পুরুষ/স্ত্রী) কৃত হয়েছি واحد مؤنث/مذكر متكلم
قَدْ فُعِلْنَا আমরা (দুইজন/সকল পুরুষ/স্ত্রী) কৃত হয়েছি جمع/تثنية مؤنث/مذكر

إِثْبَات فِعْل مَاضِى بَعِيد مَعْرُوف
হাঁ-বোধক কর্তৃবাচ্য দূরবর্তী অতীতকালীন ক্রিয়া

সংজ্ঞাঃ যে فِعْل দ্বারা দূরবর্তী অতীতে বা অনেক পূর্বে কোন কাজ সম্পন্ন হওয়া বুঝায়, তাকে إِثْبَات فعل ماضى بَعِيد معروف বা দূরবর্তী অতীতকাল বলে। যথা- كَانَ فَعَلَ সে করেছিল, كَانَ ضَرَبَ সে প্রহার করেছিল।
গঠন প্রণালীঃ إِثْبَات فعل ماضى مطلق معروف এর পূর্বে শুধু كَانَ বসাইলেই مَاضِى بَعِيد مَعْرُوف গঠিত হয়। فِعْل مَاضِى এর রূপান্তরের সাথে সাথে كَانَ এরও রূপান্তর ঘটে। যেমন- كَانَ فَعَلَ – সে করেছিল।

إِثْبَات فعل ماضى بَعِيد معروف
হাঁ-বোধক কর্তৃবাচ্য দূরবর্তী অতীতকালীন ক্রিয়া
تصريف – রুপান্তর;   معنى – অর্থ;  صيغة – রূপ;  جنس – লিঙ্গ;  شخص – পুরুষ;  واحد – একবচন;  تثنية – দ্বিবচন;  جمع – বহুবচন
تصريف অর্থ صغية جنس شخص
كَانَ فَعَلَ সে (একজন পুরুষ) করেছিল واحد مذكر غائب
كَانَا فَعَلَا তারা (দু'জন পুরুষ) করেছিল تثنية
كَانُوا فَعَلُوْا তারা (সকল পুরুষ) করেছিল جمع
كَانَتْ فَعَلَتْ সে (একজন স্ত্রী) করেছিল واحد مؤنث
كَانَتَا فَعَلَتَا তারা (দু'জন স্ত্রী) করেছিল تثنية
كُنَّ فَعَلْنَ তারা (সকল স্ত্রী) করেছিল جمع
كُنْتَ فَعَلْتَ তুমি (একজন পুরুষ) করেছিলে واحد مذكر حاضر
كُنْتُمَا فَعَلْتُمَا তোমরা (দু'জন পুরুষ) করেছিলে تثنية
كُنْتُمْ فَعَلْتُمْ তোমরা (সকল পুরুষ) করেছিলে جمع
كُنْتِ فَعَلْتِ তুমি (একজন স্ত্রী) করেছিলে واحد مؤنث
كُنْتُمَا فَعَلْتُمَا তোমরা (দু'জন স্ত্রী) করেছিলে تثنية
كُنْتُنَّ فَعَلْتُنَّ তোমরা (সকল স্ত্রী) করেছিলে جمع
كُنْتُ فَعَلْتُ আমি (একজন পুরুষ/স্ত্রী) করেছিলাম واحد مؤنث/مذكر متكلم
كُنَّا فَعَلْنَا আমরা (দুইজন/সকল পুরুষ/স্ত্রী) করেছিলাম جمع/تثنية مؤنث/مذكر

إِثْبَات فِعْل مَاضِى بَعِيد مَجْهُول
হাঁ-বোধক কর্মবাচ্য দূরবর্তী অতীতকালীন ক্রিয়া

সংজ্ঞাঃ যে فِعْل দ্বারা দূরবর্তী অতীতে কোন কাজ করা বা হওয়া বুঝায় কিন্তু উক্ত فِعْل এর فَاعِلٌ বা কর্তা জানা থাকে না তাকে إِثْبَات فِعْل مَاضِى بَعِيد مَجْهُول বলে। যথা- كَانَ فُعِلَ – সে কৃত হয়েছিল।
গঠন প্রণালীঃ إِثْبَات فِعْل مَاضِى مُطْلَق مَجْهُول এর পূর্বে كَانَ বসালে إِثْبَات فِعْل مَاضِى بَعِيد مَجْهُول গঠিত হবে। যেমন- فُعِلَ হতে كَانَ فُعِلَ – সে কৃত হয়েছিল।

إِثْبَات فعل ماضى بَعِيد مَجْهُول
হাঁ-বাচক কর্মবাচ্য দূরবর্তী অতীতকালীন ক্রিয়া
تصريف – রুপান্তর;   معنى – অর্থ;  صيغة – রূপ;  جنس – লিঙ্গ;  شخص – পুরুষ;  واحد – একবচন;  تثنية – দ্বিবচন;  جمع – বহুবচন
تصريف অর্থ صغية جنس شخص
كَانَ فُعِلَ সে (একজন পুরুষ) কৃত হয়েছিল واحد مذكر غائب
كَانَا فُعِلَا তারা (দু'জন পুরুষ) কৃত হয়েছিল تثنية
كَانُوا فُعِلُوْا তারা (সকল পুরুষ) কৃত হয়েছিল جمع
كَانَتْ فُعِلَتْ সে (একজন স্ত্রী) কৃত হয়েছিল واحد مؤنث
كَانَتَا فُعِلَتَا তারা (দু'জন স্ত্রী) কৃত হয়েছিল تثنية
كُنَّ فُعِلْنَ তারা (সকল স্ত্রী) কৃত হয়েছিল جمع
كُنْتَ فُعِلْتَ তুমি (একজন পুরুষ) কৃত হয়েছিলে واحد مذكر حاضر
كُنْتُمَا فُعِلْتُمَا তোমরা (দু'জন পুরুষ) কৃত হয়েছিলে تثنية
كُنْتُمْ فُعِلْتُمْ তোমরা (সকল পুরুষ) কৃত হয়েছিলে جمع
كُنْتِ فُعِلْتِ তুমি (একজন স্ত্রী) কৃত হয়েছিলে واحد مؤنث
كُنْتُمَا فُعِلْتُمَا তোমরা (দু'জন স্ত্রী) কৃত হয়েছিলে تثنية
كُنْتُنَّ فُعِلْتُنَّ তোমরা (সকল স্ত্রী) কৃত হয়েছিলে جمع
كُنْتُ فُعِلْتُ আমি (একজন পুরুষ/স্ত্রী) কৃত হয়েছিলাম واحد مؤنث/مذكر متكلم
كُنَّا فُعِلْنَا আমরা (দুইজন/সকল পুরুষ/স্ত্রী) কৃত হয়েছিলাম جمع/تثنية مؤنث/مذكر

إِثْبَات فِعْل مَاضِى إِسْتِمْرَارِى مَعْرُوف
হাঁ-বোধক কর্তৃবাচ্য চলমান অতীতকালীন ক্রিয়া

সংজ্ঞাঃ যে فِعْل দ্বারা অতীতকালে কোন কাজ অবিরাম হচ্ছিল বা চলছিল বুঝায়, তাকে إِثْبَات فعل ماضى إِسْتِمْرَارِى معروف বলে। যথা- كَانَ يَفْعَلُ সে করিতেছিল, كَانَ يَضْرِبُ সে প্রহার করিতেছিল।
গঠন প্রণালীঃ فِعْل مُضَارِع مَعْرُوف এর পূর্বে শুধু كَانَ বসাইলেই مَاضِى إِسْتِمْرَارِى مَعْرُوف গঠিত হয়। كَانَ শব্দটি فِعْل مَاضِى থেকে রূপান্ত হবে। مُضَارِع সম্পর্কে জানার জন্য মুযারে' এর অধ্যায় দেখুন। যেমন- كَانَ يَفْعَلُ – সে করিতেছিল।

إِثْبَات فعل ماضى إِسْتِمْرَارِى معروف
হাঁ-বোধক কর্তৃবাচ্য চলমান অতীতকালীন ক্রিয়া
تصريف – রুপান্তর;   معنى – অর্থ;  صيغة – রূপ;  جنس – লিঙ্গ;  شخص – পুরুষ;  واحد – একবচন;  تثنية – দ্বিবচন;  جمع – বহুবচন
تصريف অর্থ صغية جنس شخص
كَانَ يَفْعَلُ সে (একজন পুরুষ) করছিল واحد مذكر غائب
كَانَا يَفْعَلَانِ তারা (দু'জন পুরুষ) করছিল تثنية
كَانُوا يَفْعَلُونَ তারা (সকল পুরুষ) করছিল جمع
كَانَتْ تَفْعَلُ সে (একজন স্ত্রী) করছিল واحد مؤنث
كَانَتَا تَفْعَلَانِ তারা (দু'জন স্ত্রী) করছিল تثنية
كُنَّ يَفْعَلْنَ তারা (সকল স্ত্রী) করছিল جمع
كُنْتَ تَفْعَلُ তুমি (একজন পুরুষ) করছিলে واحد مذكر حاضر
كُنْتُمَا تَفْعَلَانِ তোমরা (দু'জন পুরুষ) করছিলে تثنية
كُنْتُمْ تَفْعَلُونَ তোমরা (সকল পুরুষ) করছিলে جمع
كُنْتِ تَفْعَلِينَ তুমি (একজন স্ত্রী) করছিলে واحد مؤنث
كُنْتُمَا تَفْعَلَانِ তোমরা (দু'জন স্ত্রী) করছিলে تثنية
كُنْتُنَّ تَفْعَلْنَ তোমরা (সকল স্ত্রী) করছিলে جمع
كُنْتُ أَفْعَلُ আমি (একজন পুরুষ/স্ত্রী) করছিলাম واحد مؤنث/مذكر متكلم
كُنَّا نَفْعَلُ আমরা (দুইজন/সকল পুরুষ/স্ত্রী) করছিলাম جمع/تثنية مؤنث/مذكر

إِثْبَات فِعْل مَاضِى إِسْتِمْرَارِى مَجْهُول
হাঁ-বোধক কর্মবাচ্য চলমান অতীতকালীন ক্রিয়া

সংজ্ঞাঃ যে فِعْل দ্বারা অতীতে কোন কাজ হচ্ছিল বা চলতেছিল বুঝায় কিন্তু উক্ত فِعْل এর فَاعِلٌ বা কর্তা জানা থাকে না তাকে إِثْبَات فِعْل مَاضِى إِسْتِمْرَارِى مَجْهُول বলে। যথা- كَانَ يُفْعَلَ – সে কৃত হচ্ছিল।
গঠন প্রণালীঃ فِعْلْ مُضَارِع مَجْهُول এর পূর্বে كَانَ বসালে إِثْبَات فِعْل مَاضِى إِسْتِمْرَارِى مَجْهُول গঠিত হবে। যেমন- يُفْعَلُ হতে كَانَ يُفْعَلُ – সে কৃত হচ্ছিল।

إِثْبَات فعل ماضى إِسْتِمْرَارِى مَجْهُول
হাঁ-বাচক কর্মবাচ্য চলমান অতীতকালীন ক্রিয়া
تصريف – রুপান্তর;   معنى – অর্থ;  صيغة – রূপ;  جنس – লিঙ্গ;  شخص – পুরুষ;  واحد – একবচন;  تثنية – দ্বিবচন;  جمع – বহুবচন
تصريف অর্থ صغية جنس شخص
كَانَ يُفْعَلُ সে (একজন পুরুষ) কৃত হচ্ছিল واحد مذكر غائب
كَانَا يُفْعَلَانِ তারা (দু'জন পুরুষ) কৃত হচ্ছিল تثنية
كَانُوا يُفْعَلُونَ তারা (সকল পুরুষ) কৃত হচ্ছিল جمع
كَانَتْ تُفْعَلُ সে (একজন স্ত্রী) কৃত হচ্ছিল واحد مؤنث
كَانَتَا تُفْعَلَانِ তারা (দু'জন স্ত্রী) কৃত হচ্ছিল تثنية
كُنَّ يُفْعَلْنَ তারা (সকল স্ত্রী) কৃত হচ্ছিল جمع
كُنْتَ تُفْعَلُ তুমি (একজন পুরুষ) কৃত হচ্ছিলে واحد مذكر حاضر
كُنْتُمَا تُفْعَلَانِ তোমরা (দু'জন পুরুষ) কৃত হচ্ছিলে تثنية
كُنْتُمْ تُفْعَلُونَ তোমরা (সকল পুরুষ) কৃত হচ্ছিলে جمع
كُنْتِ تُفْعَلِينَ তুমি (একজন স্ত্রী) কৃত হচ্ছিলে واحد مؤنث
كُنْتُمَا تُفْعَلَانِ তোমরা (দু'জন স্ত্রী) কৃত হচ্ছিলে تثنية
كُنْتُنَّ تُفْعَلْنَ তোমরা (সকল স্ত্রী) কৃত হচ্ছিলে جمع
كُنْتُ أُفْعَلُ আমি (একজন পুরুষ/স্ত্রী) কৃত হচ্ছিলাম واحد مؤنث/مذكر متكلم
كُنَّا نُفْعَلُ আমরা (দুইজন/সকল পুরুষ/স্ত্রী) কৃত হচ্ছিলাম جمع/تثنية مؤنث/مذكر

اثبات فعل ماضى شكى معروف
হাঁ-বোধক কর্তৃবাচ্য সন্দেহসূচক অতীতকালীন ক্রিয়া

সংজ্ঞাঃ যে فعل দ্বারা অতীতকালে কোন কাজ সংগঠিত হওয়ার ব্যাপারে সন্দেহ বুঝায় তাকে فعل ماضى شكى معروف বলে।
গঠন প্রণালীঃ ماضى مطلق معروف এর পূর্বে لَعَلَّمَا বসালেই ماضى شَكِّى معروف গঠিত হবে। যথা – لَعَلَّمَا كَتَبَ

اثبات فعل ماضى شَكِّى معروف
হাঁ-বাচক কর্তৃবাচ্য সন্দেহসূচক অতীতকালীন ক্রিয়া
تصريف – রুপান্তর;   معنى – অর্থ;  صيغة – রূপ;  جنس – লিঙ্গ;  شخص – পুরুষ;  واحد – একবচন;  تثنية – দ্বিবচন;  جمع – বহুবচন
تصريف অর্থ صغية جنس شخص
لَعَلَّمَا فَعَلَ সম্ভবতঃ সে (একজন পুরুষ) করেছে واحد مذكر غائب
لَعَلَّمَا فَعَلَا সম্ভবতঃ তারা (দু'জন পুরুষ) করেছে تثنية
لَعَلَّمَا فَعَلُوْا সম্ভবতঃ তারা (সকল পুরুষ) করেছে جمع
لَعَلَّمَا فَعَلَتْ সম্ভবতঃ সে (একজন স্ত্রী) করেছে واحد مؤنث
لَعَلَّمَا فَعَلَتَا সম্ভবতঃ তারা (দু'জন স্ত্রী) করেছে تثنية
لَعَلَّمَا فَعَلْنَ সম্ভবতঃ তারা (সকল স্ত্রী) করেছে جمع
لَعَلَّمَا فَعَلْتَ সম্ভবতঃ তুমি (একজন পুরুষ) করেছ واحد مذكر حاضر
لَعَلَّمَا فَعَلْتُمَا সম্ভবতঃ তোমরা (দু'জন পুরুষ) করেছ تثنية
لَعَلَّمَا فَعَلْتُمْ সম্ভবতঃ তোমরা (সকল পুরুষ) করেছ جمع
لَعَلَّمَا فَعَلْتِ সম্ভবতঃ তুমি (একজন স্ত্রী) করেছ واحد مؤنث
لَعَلَّمَا فَعَلْتُمَا সম্ভবতঃ তোমরা (দু'জন স্ত্রী) করেছ تثنية
لَعَلَّمَا فَعَلْتُنَّ সম্ভবতঃ তোমরা (সকল স্ত্রী) করেছ جمع
لَعَلَّمَا فَعَلْتُ সম্ভবতঃ আমি (একজন পুরুষ/স্ত্রী) করেছি واحد مؤنث/مذكر متكلم
لَعَلَّمَا فَعَلْنَا সম্ভবতঃ আমরা (দুইজন/সকল পুরুষ/স্ত্রী) করেছি جمع/تثنية مؤنث/مذكر

اثبات فعل ماضى شكى مجهول
হাঁ-বোধক কর্মবাচ্য সন্দেহসূচক অতীতকালীন ক্রিয়া

সংজ্ঞাঃ যে فعل দ্বারা অতীতকালে কোন কাজ সংগঠিত হওয়ার ব্যাপারে সন্দেহ বুঝায় এবং উক্ত فعل এর فَاعِل ও জানা থাকে না তাকে فعل ماضى شَكِّى বলে।
গঠন প্রণালীঃ ماضى مطلق مجهول এর পূর্বে لَعَلَّمَا বসালেই ماضى شَكِّى مجهول গঠিত হবে। যথা – لَعَلَّمَا كُتِبَ

اثبات فعل ماضى شَكِّى مجهول
হাঁ-বাচক কর্মবাচ্য সন্দেহসূচক অতীতকালীন ক্রিয়া
تصريف – রুপান্তর;   معنى – অর্থ;  صيغة – রূপ;  جنس – লিঙ্গ;  شخص – পুরুষ;  واحد – একবচন;  تثنية – দ্বিবচন;  جمع – বহুবচন
تصريف অর্থ صغية جنس شخص
لَعَلَّمَا فُعِلَ সম্ভবতঃ সে (একজন পুরুষ) কৃত হয়েছে واحد مذكر غائب
لَعَلَّمَا فُعِلَا সম্ভবতঃ তারা (দু'জন পুরুষ) কৃত হয়েছে تثنية
لَعَلَّمَا فُعِلُوْا সম্ভবতঃ তারা (সকল পুরুষ) কৃত হয়েছে جمع
لَعَلَّمَا فُعِلَتْ সম্ভবতঃ সে (একজন স্ত্রী) কৃত হয়েছে واحد مؤنث
لَعَلَّمَا فُعِلَتَا সম্ভবতঃ তারা (দু'জন স্ত্রী) কৃত হয়েছে تثنية
لَعَلَّمَا فُعِلْنَ সম্ভবতঃ তারা (সকল স্ত্রী) কৃত হয়েছে جمع
لَعَلَّمَا فُعِلْتَ সম্ভবতঃ তুমি (একজন পুরুষ) কৃত হয়েছ واحد مذكر حاضر
لَعَلَّمَا فُعِلْتُمَا সম্ভবতঃ তোমরা (দু'জন পুরুষ) কৃত হয়েছ تثنية
لَعَلَّمَا فُعِلْتُمْ সম্ভবতঃ তোমরা (সকল পুরুষ) কৃত হয়েছ جمع
لَعَلَّمَا فُعِلْتِ সম্ভবতঃ তুমি (একজন স্ত্রী) কৃত হয়েছ واحد مؤنث
لَعَلَّمَا فُعِلْتُمَا সম্ভবতঃ তোমরা (দু'জন স্ত্রী) কৃত হয়েছ تثنية
لَعَلَّمَا فُعِلْتُنَّ সম্ভবতঃ তোমরা (সকল স্ত্রী) কৃত হয়েছ جمع
لَعَلَّمَا فُعِلْتُ সম্ভবতঃ আমি (একজন পুরুষ/স্ত্রী) কৃত হয়েছি واحد مؤنث/مذكر متكلم
لَعَلَّمَا فُعِلْنَا সম্ভবতঃ আমরা (দুইজন/সকল পুরুষ/স্ত্রী) কৃত হয়েছি جمع/تثنية مؤنث/مذكر

اثبات فعل ماضى تَمَنِّائى معروف
হাঁ-বোধক কর্তৃবাচ্য আকাঙখাসূচক অতীতকালীন ক্রিয়া

সংজ্ঞাঃ فعل দ্বারা অতীতকালীন কোন কাজ সংগঠিত হওয়ার ব্যাপারে আকাঙ্খা বুঝায় তাকে ماضى تمنائى বলে। যেমন – لَيْتَمَا كَتَبَ – হায়! সে যদি লিখত।
গঠন প্রণালীঃ ماضى مطلق معروف এর পূর্বে لَيْتَمَا শব্দ যোগ করলেই ماضى تمنائى معروف গঠিত হয়। لَيْتَمَا শব্দের কোন পরিবর্তন ঘটবে না।

اثبات فعل ماضى تمنائى معروف
হাঁ-বাচক কর্তৃবাচ্য আকাঙ্খাসূচক অতীতকালীন ক্রিয়া
تصريف – রুপান্তর;   معنى – অর্থ;  صيغة – রূপ;  جنس – লিঙ্গ;  شخص – পুরুষ;  واحد – একবচন;  تثنية – দ্বিবচন;  جمع – বহুবচন
تصريف অর্থ صغية جنس شخص
لَيْتَمَا فَعَلَ যদি সে (একজন পুরুষ) করত واحد مذكر غائب
لَيْتَمَا فَعَلَا যদি তারা (দু'জন পুরুষ) করত تثنية
لَيْتَمَا فَعَلُوْا যদি তারা (সকল পুরুষ) করত جمع
لَيْتَمَا فَعَلَتْ যদি সে (একজন স্ত্রী) করত واحد مؤنث
لَيْتَمَا فَعَلَتَا যদি তারা (দু'জন স্ত্রী) করত تثنية
لَيْتَمَا فَعَلْنَا যদি তারা (সকল স্ত্রী) করত جمع
لَيْتَمَا فَعَلْتَ যদি তুমি (একজন পুরুষ) করতে واحد مذكر حاضر
لَيْتَمَا فَعَلْتُمَا যদি তোমরা (দু'জন পুরুষ) করতে تثنية
لَيْتَمَا فَعَلْتُمْ যদি তোমরা (সকল পুরুষ) করতে جمع
لَيْتَمَا فَعَلْتِ যদি তুমি (একজন স্ত্রী) করতে واحد مؤنث
لَيْتَمَا فَعَلْتُمَا যদি তোমরা (দু'জন স্ত্রী) করতে تثنية
لَيْتَمَا فَعَلْتُنَّ যদি তোমরা (সকল স্ত্রী) করতে جمع
لَيْتَمَا فَعَلْتُ যদি আমি (একজন পুরুষ/স্ত্রী) করতাম واحد مؤنث/مذكر متكلم
لَيْتَمَا فَعَلْنَا যদি আমরা (দুইজন/সকল পুরুষ/স্ত্রী) করতাম جمع/تثنية مؤنث/مذكر

اثبات فعل ماضى تمنائى مجهول
হাঁ-বোধক কর্মবাচ্য আকাঙ্খাসূচক অতীতকালীন ক্রিয়া

সংজ্ঞাঃ যে فعل দ্বারা অতীতকালে কোন কাজ সংগঠিত হওয়ার আকাঙ্খা বুঝায়, কিন্তু উক্ত فعل এর فاعل জানা যায় না তাকে فعل ماضى تمنائى مجهول বলে।
গঠন প্রণালীঃ ماضى مطلق مجهول এর পূর্বে لَيْتَمَا শব্দ যোগ করলে ماضى تمنائى مجهول গঠিত হয়। যথা – لَيْتَمَا ضُرِبَ – لَيْتَمَا كُتِبَ

اثبات فعل ماضى تمنائى مجهول
হাঁ-বাচক কর্মবাচ্য আকাঙ্খাসূচক অতীতকালীন ক্রিয়া
تصريف – রুপান্তর;   معنى – অর্থ;  صيغة – রূপ;  جنس – লিঙ্গ;  شخص – পুরুষ;  واحد – একবচন;  تثنية – দ্বিবচন;  جمع – বহুবচন
تصريف অর্থ صغية جنس شخص
لَيْتَمَا فُعِلَ যদি সে (একজন পুরুষ) কৃত হতো واحد مذكر غائب
لَيْتَمَا فُعِلَا যদি তারা (দু'জন পুরুষ) কৃত হতো تثنية
لَيْتَمَا فُعِلُوْا যদি তারা (সকল পুরুষ) কৃত হতো جمع
لَيْتَمَا فُعِلَتْ যদি সে (একজন স্ত্রী) কৃত হতো واحد مؤنث
لَيْتَمَا فُعِلَتَا যদি তারা (দু'জন স্ত্রী) কৃত হতো تثنية
لَيْتَمَا فُعِلْنَ যদি তারা (সকল স্ত্রী) কৃত হতো جمع
لَيْتَمَا فُعِلْتَ যদি তুমি (একজন পুরুষ) কৃত হতে واحد مذكر حاضر
لَيْتَمَا فُعِلْتُمَا যদি তোমরা (দু'জন পুরুষ) কৃত হতে تثنية
لَيْتَمَا فُعِلْتُمْ যদি তোমরা (সকল পুরুষ) কৃত হতে جمع
لَيْتَمَا فُعِلْتِ যদি তুমি (একজন স্ত্রী) কৃত হতে واحد مؤنث
لَيْتَمَا فُعِلْتُمَا যদি তোমরা (দু'জন স্ত্রী) কৃত হতে تثنية
لَيْتَمَا فُعِلْتُنَّ যদি তোমরা (সকল স্ত্রী) কৃত হতে جمع
لَيْتَمَا فُعِلْتُ যদি আমি (একজন পুরুষ/স্ত্রী) কৃত হতাম واحد مؤنث/مذكر متكلم
لَيْتَمَا فُعِلْنَا যদি আমরা (দুইজন/সকল পুরুষ/স্ত্রী) কৃত হতাম جمع/تثنية مؤنث/مذكر

اَلتَّمْرِيْنُ
অনুশীলনী

১। ماضى فريب কাকে বলে? ইহার গঠন প্রণালী বর্ণনা কর।
২। ماضى بعيد কাকে বলে? ইহার গঠন প্রণালী বর্ণনা কর।
৩। ماضى شكى কাকে বলে? ইহার গঠন প্রণালী বর্ণনা কর।
৪। ماضى تمنائى কাকে বলে? ইহার গঠন প্রণালী বর্ণনা কর।
৫। ماضى استمرارى কাকে বলে? ইহার গঠন প্রণালী বর্ণনা কর।
৬। নিম্নলিখিত مصدر দ্বারা পার্শ্বে উল্লেখিত فعل এর রূপান্তর কর –

اَضَّرْبُ – প্রহার করা
اَسَّمْعُ – শ্রবণ করা
اَلضِحْكُ – হাসি দেওয়া
ماضى قريب
اَلْقَتْلُ – হত্যা করা
اَلنَّصْرُ – সাহায্য করা
اَلصَّبْرُ – ধৈর্যধারণ করা
ماضى بعيد
اَلْفَتْحُ – বিজয়লাভ করা
اَلْفَصْلُ – বিচ্ছেদ করা
اَلْقِطْعُ – কর্তন করা
ماضى شكى
اَلْكُفْرُ – কুফুরী করা
اَلْفَهْمُ – অনুধাবন করা
اَلظُّلْمُ – অত্যাচার করা
ماضى تمنائى

৬। সীগাহ ও বহস বলঃ قَدْ كَتَبَ – كَانُوا يَضْرِبْنَ – لَيْتَمَا كَتَبْنَ – لَيْتَمَا سَمِعْنَا
৭। আরবী করঃ
আমি করেছি, সে (একজন পুরুষ) গিয়াছিল, তুমি (একজন স্ত্রী) মারতেছিলে, তারা (দুইজন পুরুষ) হাসতেছিল, হায়! আমরা যদি লিখতাম, সম্ভবতঃ তোমরা (সকল পুরুষ) গিয়াছিলে। ا

فعل مضارع
বর্তমান ও ভবিষ্যতকালীন ক্রিয়া

সংজ্ঞাঃ যে فعل দ্বারা বর্তমানকালে কোন কাজ সংগঠিত হচ্ছে বা ভবিষ্যতকালে সংগঠিত হবে, এরূপ বুঝালে তাকে فعل مضارع বলে। যেমন – يَفْعَلُ – সে (একজন পুরুষ) করছে বা করবে, يَضْرِبُ সে (একজন পুরুষ) প্রহার করছে বা করবে।

اثبات فعل مضارع معروف
হাঁ-বোধক কর্তৃবাচ্য বর্তমান বা ভবিষ্যতকালীন ক্রিয়া

গঠন প্রণালীঃ فعل ماضى থেকেই فعل طضارع গঠিত হয়। ماضى এর শুরুতে مضارع এর চিহ্নসমূহ (علامت مضارع) হতে নিয়ম অনুযায়ি যে কোন একটি চিহ্ন নিয়ে ماضى এর শুরুতে যোগ করতঃ শেষ অক্ষরে ضمة (পেশ) দিলেই مضارغ معروف গঠিত হবে। যেমন – فَعَلَ হতে يَفْعَلُ
علامت مضارع বা مضارع এর চিহ্ন হচ্ছে চারটি। যথা ن – ي – ت – ا যাদের সমষ্টিকে اَتَيْنَ বলে। ইহাদের মধ্যে ا (আলিফ) কেবল واحد متكلم এর শুরুতে বসে। আর ت আটটি সীগাহর শুরুতে বসবে। উক্ত আট সীগাহ হচ্ছে حاضر এর ছয়টি এবং غائب مؤنث এর واحد تثنية দুইটি। আর ي চার সীগার শুরুতে বসে। উক্ত চার সীগাহ হচ্ছে غائب مذكر এর তিনটি এবং غائب مؤنث جمع এর সীগাহটি। বাঁকী ن শুধু جمع متكلم এর শুরুতে বসবে।
আতঃপর ماضى এর শেষে সাত স্থানে نُوْن اِغْرَابِى (বিভক্তি নির্দেশক নূন) যোগ করতে হবে। চার تثنية এর শেষক্ত كسر ن (যের) বিশিষ্ট হবে। অবশিষ্ট তিনটি সীগাহ حمع مذكر غائبحاضر এবং واحد مؤنث حاضر এর فتحه ن (যবর) বিশিষ্ট হবে।
উল্লেখ্য যে جمع مؤنث غائبحاضر এর ن এর কোন পরিবর্তন ঘটবে না। ماضى এর ক্ষেত্রে যেরূপ ছিল مضارع এর ক্ষেত্রেও আনুরূপ বিদ্যমান থাকবে।

اثبات فعل مضارع معروف
হাঁ-বাচক কর্তৃবাচ্য বর্তমান ও ভবিষ্যতকালীন ক্রিয়া
تصريف – রুপান্তর;   معنى – অর্থ;  صيغة – রূপ;  جنس – লিঙ্গ;  شخص – পুরুষ;  واحد – একবচন;  تثنية – দ্বিবচন;  جمع – বহুবচন
تصريف অর্থ صغية جنس شخص
يَفْعَلُ সে (একজন পুরুষ) করছে বা করবে واحد مذكر غائب
يَفْعَلَانِ তারা (দু'জন পুরুষ) করছে বা করবে تثنية
يَفْعَلُوْنَ তারা (সকল পুরুষ) করছে বা করবে جمع
تَفْعَلُ সে (একজন স্ত্রী) করছে বা করবে واحد مؤنث
تَفْعَلَانِ তারা (দু'জন স্ত্রী) করছে বা করবে تثنية
يَفْعَلْنَ তারা (সকল স্ত্রী) করছে বা করবে جمع
تَفْعَلُ তুমি (একজন পুরুষ) করছ বা করবে واحد مذكر حاضر
تَفْعَلَانِ তোমরা (দু'জন পুরুষ) করছ বা করবে تثنية
تَفْعَلُوْنَ তোমরা (সকল পুরুষ) করছ বা করবে جمع
تَفْعَلِيْنَ তুমি (একজন স্ত্রী) করছ বা করবে واحد مؤنث
تَفْعَلَانِ তোমরা (দু'জন স্ত্রী) করছ বা করবে تثنية
تَفْعَلْنَ তোমরা (সকল স্ত্রী) করছ বা করবে جمع
اَفْعَلُ আমি (একজন পুরুষ/স্ত্রী) করছি বা করব واحد مؤنث/مذكر متكلم
نَفْعَلُ আমরা (দুইজন/সকল, পুরুষ/স্ত্রী) করছি বা করব جمع/تثنية مؤنث/مذكر

اثبات فعل مضارع مجهول
হাঁ-বোধক কর্মবাচ্য বর্তমান বা ভবিষ্যতকালীন ক্রিয়ার বিবরণ

সংজ্ঞাঃ যে হাঁ-বোধক বর্তমান বা ভবিষ্যতকালীন ক্রিয়ার فاعل বা কর্তা জানা থাকে না তাকে اثبات فعل مضارع مجهول বলে।
গঠন প্রণালীঃ فعل مضارع مجهول গঠন করতে হলে علامات مضارع বা مضارع এর চিহ্নের উপর ضمة (পেশ) দিতে হবে এবং ع কালিমা فتحه (যবর) বিশিষ্ট না থাকলে فتحه দিতে হবে। আর ل কালিমা ضمة বহাল থাকবে। এভাবে فعل مضارع مجهول গঠিত হবে। يَفْعَلُ হতে يُفْعَلُ

اثبات فعل مضارع مجهول
হাঁ-বাচক কর্মবাচ্য বর্তমান ও ভবিষ্যতকালীন ক্রিয়া
تصريف – রুপান্তর;   معنى – অর্থ;  صيغة – রূপ;  جنس – লিঙ্গ;  شخص – পুরুষ;  واحد – একবচন;  تثنية – দ্বিবচন;  جمع – বহুবচন
تصريف অর্থ صغية جنس شخص
يُفْعَلُ সে (একজন পুরুষ) কৃত হচ্ছে বা হবে واحد مذكر غائب
يُفْعَلَانِ তারা (দু'জন পুরুষ) কৃত হচ্ছে বা হবে تثنية
يُفْعَلُوْنَ তারা (সকল পুরুষ) কৃত হচ্ছে বা হবে جمع
تُفْعَلُ সে (একজন স্ত্রী) কৃত হচ্ছে বা হবে واحد مؤنث
تُفْعَلَانِ তারা (দু'জন স্ত্রী) কৃত হচ্ছে বা হবে تثنية
يُفْعَلْنَ তারা (সকল স্ত্রী) কৃত হচ্ছে বা হবে جمع
تُفْعَلُ তুমি (একজন পুরুষ) কৃত হচ্ছ বা হবে واحد مذكر حاضر
تُفْعَلَانِ তোমরা (দু'জন পুরুষ) কৃত হচ্ছ বা হবে تثنية
تُفْعَلُوْنَ তোমরা (সকল পুরুষ) কৃত হচ্ছ বা হবে جمع
تُفْعَلِيْنَ তুমি (একজন স্ত্রী) কৃত হচ্ছ বা হবে واحد مؤنث
تُفْعَلَانِ তোমরা (দু'জন স্ত্রী) কৃত হচ্ছ বা হবে تثنية
تُفْعَلْنَ তোমরা (সকল স্ত্রী) কৃত হচ্ছ বা হবে جمع
اُفْعَلُ আমি (একজন পুরুষ/স্ত্রী) কৃত হচ্ছি বা হব واحد مؤنث/مذكر متكلم
نُفْعَلُ আমরা (দুইজন/সকল, পুরুষ/স্ত্রী) কৃত হচ্ছি বা হব جمع/تثنية مؤنث/مذكر


نفى فعل مضارع معروف
না-বোধক কর্তৃবাচ্য বর্তমান বা ভবিষ্যতকালীন ক্রিয়া

সংজ্ঞাঃ যে فعل দ্বারা বর্তমান বা ভবিষ্যতকলে কোন কাজ না করা বুঝায় তাকে نفى فعل مضارع معروف বলে।
গঠন প্রণালীঃ اثبات فعل مضارع معروف এর পূর্বে لائى نفى বা না-বোধক لا বসার কারণে نفى فعل مضارع معروف গঠিত হয়। لا বসার কারণে مضارع এর সীগার মধ্যে কোনরূপ পরিবর্তন সাধিত হয় না। শুধু অর্থ প্রকাশের ক্ষেত্রে হাঁ-বোধক না-বোধকে পরিণত হয়।

نفى فعل مضارع معروف
না-বোধক কর্তৃবাচ্য বর্তমান ও ভবিষ্যতকালীন ক্রিয়া
تصريف – রুপান্তর;   معنى – অর্থ;  صيغة – রূপ;  جنس – লিঙ্গ;  شخص – পুরুষ;  واحد – একবচন;  تثنية – দ্বিবচন;  جمع – বহুবচন
تصريف অর্থ صغية جنس شخص
لَا يَفْعَلُ সে (একজন পুরুষ) করছে না বা করবে না واحد مذكر غائب
لَا يَفْعَلَانِ তারা (দু'জন পুরুষ) করছে না বা করবে না تثنية
لَا يَفْعَلُوْنَ তারা (সকল পুরুষ) করছে না বা করবে না جمع
لَا تَفْعَلُ সে (একজন স্ত্রী) করছে না বা করবে না واحد مؤنث
لَا تَفْعَلَانِ তারা (দু'জন স্ত্রী) করছে না বা করবে না تثنية
لَا يَفْعَلْنَ তারা (সকল স্ত্রী) করছে না বা করবে না جمع
لَا تَفْعَلُ তুমি (একজন পুরুষ) করছ না বা করবে না واحد مذكر حاضر
لَا تَفْعَلَانِ তোমরা (দু'জন পুরুষ) করছ না বা করবে না تثنية
لَا تَفْعَلُوْنَ তোমরা (সকল পুরুষ) করছ না বা করবে না جمع
لَا تَفْعَلِيْنَ তুমি (একজন স্ত্রী) করছ না বা করবে না واحد مؤنث
لَا تَفْعَلَانِ তোমরা (দু'জন স্ত্রী) করছ না বা করবে না تثنية
لَا تَفْعَلْنَ তোমরা (সকল স্ত্রী) করছ না বা করবে না جمع
لَا اَفْعَلُ আমি (একজন পুরুষ/স্ত্রী) করছি না বা করব না واحد مؤنث/مذكر متكلم
لَا نَفْعَلُ আমরা (দুইজন/সকল, পুরুষ/স্ত্রী) করছি না বা করব না جمع/تثنية مؤنث/مذكر

نَفى فعل مضارع مجهول
না-বোধক কর্মবাচ্য বর্তমান বা ভবিষ্যতকালীন ক্রিয়া

সংজ্ঞাঃ যে فعل দ্বারা বর্তমান বা ভবিষ্যতকালে কোন কাজ না করা বুঝায় এবং উক্ত فعل এর فاعل জানা থাকে না তাকে نفى فعل مضارع مجهول বলে।
গঠন প্রণালীঃ اثبات فعل مضارع مجهول এর পূর্বে لَا 'না' যোগ করলে نفى فعل مضارع مجهول গঠিত হবে। যথা- يُفْعَلُ হতে لَا يُفْعَلُ

نفى فعل مضارع مجهول
না-বোধক কর্মবাচ্য বর্তমান ও ভবিষ্যতকালীন ক্রিয়া
تصريف – রুপান্তর;   معنى – অর্থ;  صيغة – রূপ;  جنس – লিঙ্গ;  شخص – পুরুষ;  واحد – একবচন;  تثنية – দ্বিবচন;  جمع – বহুবচন
تصريف অর্থ صغية جنس شخص
لَا يُفْعَلُ সে (একজন পুরুষ) কৃত হচ্ছে না বা হবে না واحد مذكر غائب
لَا يُفْعَلَانِ তারা (দু'জন পুরুষ) কৃত হচ্ছে না বা হবে না تثنية
لَا يُفْعَلُوْنَ তারা (সকল পুরুষ) কৃত হচ্ছে না বা হবে না جمع
لَا تُفْعَلُ সে (একজন স্ত্রী) কৃত হচ্ছে না বা হবে না واحد مؤنث
لَا تُفْعَلَانِ তারা (দু'জন স্ত্রী) কৃত হচ্ছে না বা হবে না تثنية
لَا يُفْعَلْنَ তারা (সকল স্ত্রী) কৃত হচ্ছে না বা হবে না جمع
لَا تُفْعَلُ তুমি (একজন পুরুষ) কৃত হচ্ছ না বা হবে না واحد مذكر حاضر
لَا تُفْعَلَانِ তোমরা (দু'জন পুরুষ) কৃত হচ্ছ না বা হবে না تثنية
لَا تُفْعَلُوْنَ তোমরা (সকল পুরুষ) কৃত হচ্ছ না বা হবে না جمع
لَا تُفْعَلِيْنَ তুমি (একজন স্ত্রী) কৃত হচ্ছ না বা হবে না واحد مؤنث
لَا تُفْعَلَانِ তোমরা (দু'জন স্ত্রী) কৃত হচ্ছ না বা হবে না تثنية
لَا تُفْعَلْنَ তোমরা (সকল স্ত্রী) কৃত হচ্ছ না বা হবে না جمع
لَا اُفْعَلُ আমি (একজন পুরুষ/স্ত্রী) কৃত হচ্ছি না বা হব না واحد مؤنث/مذكر متكلم
لَا نُفْعَلُ আমরা (দুইজন/সকল, পুরুষ/স্ত্রী) কৃত হচ্ছি না বা হব না جمع/تثنية مؤنث/مذكر

اَتَّمْرِينُ
অনুশীলনী

১। مضارع কাকে বলে? علامات مضارع কয়টি ও কি কি?
২। فعل مضارع معروف এর গঠন প্রণালী বর্ণনা কর।
৩। مضارع مجهول এর গঠন প্রণালী বর্ণনা কর।
৪। সীগাহ ও বহস বলঃ
يَفْعَلُونَ – لَا تَفْعَلُ – تُفْعَلِينَ – تَفْعَلْنَ – نَفْعَلُ – لَا اُفْعَلُ
৫। فعل مضارع এর রূপান্তর করঃ
اَلضَّرْبُ – اَلسَّمْعُ – اَلْقَتْلُ – اَلْفَصْلُ
৬। আরবী বলঃ
ক) সে (একজন পুরুষ) করেছে বা করবে।
খ) তুমি (একজন স্ত্রী) লিখছ বা লিখবে।
গ) তারা (সকল পুরুষ) যাচ্ছে বা যাবে।
ঘ) আমি (একজন পুরুষ) মারছি বা মারব।
ঙ) আমরা করছি না, বা করব না।
চ) তোমরা (সকল পুরুষ) কৃত হচ্ছ না, বা হবে না।

نفى تَاكِيد بَلَنْ دَرْفعل مُسْتَقْبِل معروف
لَنْ যোগে দৃঢ়তাসূচক না-বোধক কর্তৃবাচক ভবিষ্যতকালীন ক্রিয়া

সংজ্ঞাঃ যে فعل দ্বারা ভবিষ্যতকালে কোন কাজ সংগঠিত না হওয়ার ব্যপারে দৃঢ় আশাবাদ ব্যক্ত করা বুঝায় তাকে نفى تاكيد بالن درفعل مستقبل معروف বলে।
গঠন প্রণালীঃ فعل مضارع এর পূর্বে নাবোধক لَنْ যোগ করত نفى تاكيد بلن গঠন করতে হয়। এই لَنْ যুক্ত হওয়ায় مضارع এর সীগাহর শেষোক্ত পাঁচ স্থানে যবর হয়। যথা- (১) يَفْعَلُ – واحد مذكر غائب ,  (২) تَفْعَلُ – واحد مؤنث غائب ,  (৩) تَفْعَلُ – واحد مذكر حاضر ,  (৪) اَفْعَلُ – واحد متكلم ,  (৫) نَفْعَلُ – جمع متكلم
অতঃপর সাত স্থান হতে نون اعرابى বা বিভক্তি নির্দেশক ن বিলুপ্ত করতে হবে। উক্ত স্থানগুলো হচ্ছে- চার تثنية এবং দু'টি جمع مذكر غائبجمع مذكر حاضر এবং একটি واحد مؤنث حاضر যথা- (يَفْعَلَانِ، تَفْعَلَانِ، تَفْعَلَانِ، تَفْعَلَانِ، يَفْعَلُونَ، تَفْعَلُونَ، تَفْعَلِينَ)
আর جمع مؤنث غائبجمع مؤنث حاضر সীগাহ দু'টির মধ্যে কোনরূপ পরিবর্তন সাধিত হবে না। শুধু مضارع এর পূর্বে لَنْ প্রবিষ্ট হওয়ার ফলে উহাকে ভবিষ্যতকালীন দৃঢ়তাসূচক না-বোধক অর্থে পরিণত করে। যথা- يَفْعَلْنَ হতে لَنْ يَّفْعَلْنَ এবং تَفْعَلْنَ হতে لَنْ تَفْعَلْنَ

نفى تَاكِيد بَلَنْ دَرْفعل مُسْتَقْبِل معروف
لَنْ যোগে দৃঢ়তাসূচক না-বোধক কর্তৃবাচক ভবিষ্যতকালীন ক্রিয়া
تصريف – রুপান্তর;   معنى – অর্থ;  صيغة – রূপ;  جنس – লিঙ্গ;  شخص – পুরুষ;  واحد – একবচন;  تثنية – দ্বিবচন;  جمع – বহুবচন
تصريف অর্থ صغية جنس شخص
لَنْ يَّفْعَلَ সে (একজন পুরুষ) কখনো করবে না واحد مذكر غائب
لَنْ يَّفْعَلَا তারা (দু'জন পুরুষ) কখনো করবে না تثنية
لَنْ يَّفْعَلُوا তারা (সকল পুরুষ) কখনো করবে না جمع
لَنْ تَفْعَلَ সে (একজন স্ত্রী) কখনো করবে না واحد مؤنث
لَنْ تَفْعَلَا তারা (দু'জন স্ত্রী) কখনো করবে না تثنية
لَنْ يَّفْعَلْنَ তারা (সকল স্ত্রী) কখনো করবে না جمع
لَنْ تَفْعَلَ তুমি (একজন পুরুষ) কখনো করবে না واحد مذكر حاضر
لَنْ تَفْعَلَا তোমরা (দু'জন পুরুষ) কখনো করবে না تثنية
لَنْ تَفْعَلُوا তোমরা (সকল পুরুষ) কখনো করবে না جمع
لَنْ تَفْعَلِى তুমি (একজন স্ত্রী) কখনো করবে না واحد مؤنث
لَنْ تَفْعَلَا তোমরা (দু'জন স্ত্রী) কখনো করবে না تثنية
لَنْ تَفْعَلْنَ তোমরা (সকল স্ত্রী) কখনো করবে না جمع
لَنْ اَفْعَلَ আমি (একজন পুরুষ/স্ত্রী) কখনো করব না واحد مؤنث/مذكر متكلم
لَنْ نَفْعَلَ আমরা (দুইজন/সকল, পুরুষ/স্ত্রী) কখনো করব না جمع/تثنية مؤنث/مذكر

نفى تاكيد بلن درفعل مستقتل مجهول
لَنْ যোগে না বোধক দৃঢ়তাসূচক কর্মবাচ্য ভবিষ্যতকালীন ক্রিয়া

সংজ্ঞাঃ যে نفى تاكيد بلن درفعل مستقتل معروف এর فاعل কর্তা জানা থাকে না তাকে نفى تاكيد بلن درفعل مستقبل معروف বলে।
গঠন প্রণালীঃ مضارع مجهول এর পূর্বে لَنْ যোগ করলে نفى تاكيد بلن درفعل مستقبل مجهول গঠিত হয়। مضارع مجهول যেভাবে শব্দের মধ্যে আসে সেভাবে এখানেও আসবে। শুধুমাত্র لَنْ যুক্ত হওয়ার কারণে অর্থের না-বোধক দৃঢ়তা প্রকাশ পাবে। আর অন্যান্য নিয়ম যেমন না-বোধক দৃঢ়তাসূচক কর্তৃবাচ্যের হয়েছে ঠিক তেমনি কর্মবাচ্যেও হবে।

نفى تَاكِيد بَلَنْ دَرْفعل مُسْتَقْبِل مجهول
لَنْ যোগে দৃঢ়তাসূচক না-বোধক কর্মবাচক ভবিষ্যতকালীন ক্রিয়া
تصريف – রুপান্তর;   معنى – অর্থ;  صيغة – রূপ;  جنس – লিঙ্গ;  شخص – পুরুষ;  واحد – একবচন;  تثنية – দ্বিবচন;  جمع – বহুবচন
تصريف অর্থ صغية جنس شخص
لَنْ يُّفْعَلَ সে (একজন পুরুষ) কখনো কৃত হবে না واحد مذكر غائب
لَنْ يُّفْعَلَا তারা (দু'জন পুরুষ) কখনো কৃত হবে না تثنية
لَنْ يُّفْعَلُوا তারা (সকল পুরুষ) কখনো কৃত হবে না جمع
لَنْ تُفْعَلَ সে (একজন স্ত্রী) কখনো কৃত হবে না واحد مؤنث
لَنْ تُفْعَلَا তারা (দু'জন স্ত্রী) কখনো কৃত হবে না تثنية
لَنْ يُّفْعَلْنَ তারা (সকল স্ত্রী) কখনো কৃত হবে না جمع
لَنْ تُفْعَلَ তুমি (একজন পুরুষ) কখনো কৃত হবে না واحد مذكر حاضر
لَنْ تُفْعَلَا তোমরা (দু'জন পুরুষ) কখনো কৃত হবে না تثنية
لَنْ تُفْعَلُوا তোমরা (সকল পুরুষ) কখনো কৃত হবে না جمع
لَنْ تُفْعَلِى তুমি (একজন স্ত্রী) কখনো কৃত হবে না واحد مؤنث
لَنْ تُفْعَلَا তোমরা (দু'জন স্ত্রী) কখনো কৃত হবে না تثنية
لَنْ تُفْعَلْنَ তোমরা (সকল স্ত্রী) কখনো কৃত হবে না جمع
لَنْ اُفْعَلَ আমি (একজন পুরুষ/স্ত্রী) কখনো কৃত হব না واحد مؤنث/مذكر متكلم
لَنْ نُفْعَلَ আমরা (দুইজন/সকল, পুরুষ/স্ত্রী) কখনো কৃত হব না جمع/تثنية مؤنث/مذكر

نفى جحد بلم درفعل مستقبل معروف
لَنْ যোগে না-বোধক অস্বীকৃতিজ্ঞাপক কর্তৃবাচ্য ভবিষ্যতকালীন ক্রিয়া

সংজ্ঞাঃ যে فعل দ্বারা অতীতকালে কোন কাজ না করার দৃঢ়তা বুঝায় তাকে نفى جحد درفعل مستقبل معروف বলে। যথা- لَمْ يَفْعَلْ সে করে নাই।
গঠন প্রণালীঃ نفى جحد بلم درفعل مستقبل معروف গঠন করতে হলে فعل مضارع পূর্বে لَمْ শব্দটি বসাতে হয়। لَمْ আসার কারণে مضارع এর অর্থ পরিবর্তীত হয়ে ماضى منفى এর অর্থ প্রকাশ করে।
لَمْ যোগ করার ফলে مضارع এর শেষোক্ত পাঁচ স্থানে ضمة (পেশের) স্থলে জযম হবে। উক্ত পাঁচ স্থান হচ্ছে- (১) واحد مذكر غائب (২) واحد مؤنث غائب (৩) واحد مذكر حاضر (৪) واحد متكلم (৫) جمع متكلم
আর শেষের কালিমায় حرف علت বা (و-ا-ي) থাকলে তাহা বিলুপ্ত হবে। যথা- يَخْشٰى হতে لَمْ يَخْشَ এবং يَدْعُو হতে لَمْ يَدْعُ ইত্যাদি।
অতঃপর সাত স্থান হতে نون اعرابى কে বিলুপ্ত করতে হবে। উক্ত সাত স্থান হচ্ছে চার تثنية ও দুই جمع مذكر غائبجمع مذكر حاضر এবং একটি واحد مؤنث حاضر । আর جمع مؤنث غائبجمع مؤنث حاضر এর ن এর মধ্যে কোন পরিবর্তন সাধিত হবে না।

نفى جحد بلم درفعل مستقبل معروف
না-বোধক অস্বীকৃতিজ্ঞাপক কর্তৃবাচ্য ক্রিয়া
تصريف – রুপান্তর;   معنى – অর্থ;  صيغة – রূপ;  جنس – লিঙ্গ;  شخص – পুরুষ;  واحد – একবচন;  تثنية – দ্বিবচন;  جمع – বহুবচন
تصريف অর্থ صغية جنس شخص
لَمْ يَفْعَلْ সে (একজন পুরুষ) করেনি واحد مذكر غائب
لَمْ يَفْعَلَا তারা (দু'জন পুরুষ) করেনি تثنية
لَمْ يَفْعَلُوا তারা (সকল পুরুষ) করেনি جمع
لَمْ تَفْعَلْ সে (একজন স্ত্রী) করেনি واحد مؤنث
لَمْ تَفْعَلَا তারা (দু'জন স্ত্রী) করেনি تثنية
لَمْ يَفْعَلْنَ তারা (সকল স্ত্রী) করেনি جمع
لَمْ تَفْعَلْ তুমি (একজন পুরুষ) করনি واحد مذكر حاضر
لَمْ تَفْعَلَا তোমরা (দু'জন পুরুষ) করনি تثنية
لَمْ تَفْعَلُوا তোমরা (সকল পুরুষ) করনি جمع
لَمْ تَفْعَلِى তুমি (একজন স্ত্রী) করনি واحد مؤنث
لَمْ تَفْعَلَا তোমরা (দু'জন স্ত্রী) করনি تثنية
لَمْ تَفْعَلْنَ তোমরা (সকল স্ত্রী) করনি جمع
لَمْ اَفْعَلْ আমি (একজন পুরুষ/স্ত্রী) করিনি واحد مؤنث/مذكر متكلم
لَمْ نَفْعَلْ আমরা (দুইজন/সকল, পুরুষ/স্ত্রী) করিনি جمع/تثنية مؤنث/مذكر

نفى جحد بلم درفعل مستقبل مجهول
لَمْ যোগে না-বোধক অস্বীকৃতিজ্ঞাপক কর্মবাচ্য ভবিষ্যতকালীন ক্রিয়া

সংজ্ঞাঃ যে فعل দ্বারা কোন কাজ না করার দৃঢ়তা বুঝায় তাকে কিন্তু তার فاعل বা কর্তা জানা থাকে না তাকে نفى جحد بلم درفعل مستقبل مجهول বলে।
গঠন প্রণালীঃ نفى جحد بلم درفعل مستقبل معروف এর ف কালিমার পূর্বে আলাম মুযা'রের উপর ضمة (পেশ) দিলেই نفى جحد بلم درفعل مستقبل مجهول গঠিত হবে।

نفى جحد بلم درفعل مستقبل مجهول
না-বোধক অস্বীকৃতিজ্ঞাপক কর্তৃবাচ্য ক্রিয়া
تصريف – রুপান্তর;   معنى – অর্থ;  صيغة – রূপ;  جنس – লিঙ্গ;  شخص – পুরুষ;  واحد – একবচন;  تثنية – দ্বিবচন;  جمع – বহুবচন
تصريف অর্থ صغية جنس شخص
لَمْ يُفْعَلْ সে (একজন পুরুষ) কৃত হয়নি واحد مذكر غائب
لَمْ يُفْعَلَا তারা (দু'জন পুরুষ) কৃত হয়নি تثنية
لَمْ يُفْعَلُوا তারা (সকল পুরুষ) কৃত হয়নি جمع
لَمْ تُفْعَلْ সে (একজন স্ত্রী) কৃত হয়নি واحد مؤنث
لَمْ تُفْعَلَا তারা (দু'জন স্ত্রী) কৃত হয়নি تثنية
لَمْ يُفْعَلْنَ তারা (সকল স্ত্রী) কৃত হয়নি جمع
لَمْ تُفْعَلْ তুমি (একজন পুরুষ) কৃত হওনি واحد مذكر حاضر
لَمْ تُفْعَلَا তোমরা (দু'জন পুরুষ) কৃত হওনি تثنية
لَمْ تُفْعَلُوا তোমরা (সকল পুরুষ) কৃত হওনি جمع
لَمْ تُفْعَلِى তুমি (একজন স্ত্রী) কৃত হওনি واحد مؤنث
لَمْ تُفْعَلَا তোমরা (দু'জন স্ত্রী) কৃত হওনি تثنية
لَمْ تُفْعَلْنَ তোমরা (সকল স্ত্রী) কৃত হওনি جمع
لَمْ اُفْعَلْ আমি (একজন পুরুষ/স্ত্রী) কৃত হইনি واحد مؤنث/مذكر متكلم
لَمْ نُفْعَلْ আমরা (দুইজন/সকল, পুরুষ/স্ত্রী) হইনি جمع/تثنية مؤنث/مذكر

اَتَّمْرِينُ
অনুশীলনী

১। نفى تاكيد بلن কাকে বলে? نفى تاكيد بلن এর গঠন প্রণালী বর্ণনা কর।
২। نفى جحد بلم কাকে বলে? نفى جحد بلم এর গঠন প্রণালী বর্ণনা কর।
৩। নিম্নের মাসদারসমূহের দ্বারা نفى تاكيد بلن এর রূপান্তর করঃ

(ক) اَلضَّرْبُ – প্রহার করা
(খ) اَلْكِتَابَةُ – লেখা
(গ) اَلْفَتْحُ – বিজয় লাভ করা।
(ঘ) اَلْكُرْهُ – অপসন্দ করা।

৪। নিম্নের মাসদারসমূহ দ্বারা نفى جحد بلم এর রূপান্তর করঃ

(ক) اَلظُّلْمُ – অত্যাচার করা।
(খ) اَلنَّصْرُ – সাহায্য করা।
(গ) اَلْفَهْمُ – অনুধাবন করা।
(ঘ) اَلْعِلْمُ – বিদ্যার্জন করা।

৫। কোনটি কোন সীগাহ ও কোন বহস বলঃ
لَمْ اَفْعَلْ – لَنْ يَّضْرِبَ – لَنْ يَّقْتُلَا – لَمْ تَكْتُبْ – لَمْ تَسْمَعْ
৬। আরবী বলঃ

(ক) তুমি (একজন পুরুষ) কখনো করবে না।
(খ) তোমরা (সকল পুরুষ) কখনো করবে না।
(গ) তারা (সকল স্ত্রী) কখনো লিখবে না।
(ঘ) আমরা যাইনি
(ঙ) তুমি (একজন স্ত্রী) করোনি।
(চ) আমি সাহায্য করিনি।

لام تاكيد بانون تاكيد ثقيلة و خفيفة درفعل مستقبل معروف
নিশ্চয়তাবোধক 'লাম' এবং তাশদীদ ও জযমযুক্ত নূনযোগে কর্তৃবাচ্য ভবিষ্যতকালীন ক্রিয়া

সংজ্ঞাঃ ভবিষ্যৎকালে নিশ্চিতভাবে কোন কাজ করা বুঝাতে হলে فعل مستقبل এর পূর্বে একটি ل এবং শেষে একটি তাশদীদযুক্ত বা জযমযুক্ত নূন যোগ করতে হয়। এই ل টিকে لام تاكيد এবং তাশদীদ বা জযমযুক্ত ن কে نون تاكيد ثقيلة و خفيفة বলে।
গঠন প্রণালীঃ لام تاكيد بانون تاكيد درفعل مستقبل গঠন করতে হলে مضارع এর শুরুতে একটি لام تاكيد এবং শেষে نون تاكيد যোগ করতে হবে। لام تاكيد সর্বদা فتحه (যবর) যুক্ত হবে।
نون تاكيد দুই প্রকার। যথা- (১) ثقيلة বা তাশদীদবিশিষ্ট। نون ثقيلة চৌদ্দটি সীগার সাথে এবং نون خفيفة আটটি সীগার সাথে ব্যবহার করা হয়।
نون ثقيلة এর পাঁচ স্থানে فتحه যুক্ত হবে। যথা- (১) لَيَفْعَلَنَّ – واحد مذكر غائب (২) لَتَفْعَلَنَّ – واحد مؤنث غائب (৩) لَتَفْعَلَنَّ – واحد مذكر حاضر (৪) لَاَفْعَلَنَّ – واحد متكلم (৫) لَنَفْعَلَنَّ – جمع متكلم
আর ছয়টি সীগাতে نون ثقيلة এর পূর্বে الف বসবে। এই ছয় সীগাহ হচ্ছে চারটি تثنية এবং দুইটি جمع مؤنث غائبجمع مؤنث حاضر । শেষোক্ত দু'টির শেষে نون ثقيلة এর পূর্বে الف বসবে যাকে الف فاصلة বা পৃথককারী আলিফ বলা হয়। আর جمع مذكر غائبجمع مذكر حاضر হতে واو উঠিয়ে দিয়ে তার পূর্বের حرفضمة দিতে হবে যাতে বুঝা যায় যে, এর পরে একটি واو ছিল। আর واحد مؤنث حاضر এর সীগাহ হতে ى তুলে দিয়ে তার পূর্বের حرفكسره দিতে হবে, যাতে বুঝাযায় যে এর পর একটি ى ছিল।
نون ثقيلة ঐ ছয়টি স্থানে كسر বিশিষ্ট হবে, যেখানে তাদের পূর্বে الف আছে। অবশিষ্ট আট স্থানের نون ثقيلة যবর যুক্ত হবে। প্রকাশ থাকে যে, যে সকল সীগাহতে الف আসে সেই সকল সীগাতে نون خفيفة বসে না। অবশিষ্ট ৮টি সীগাহ তে نون خفيفة বসে। উল্লেখ্য نون تاكيدنون اعرابى একত্রে ব্যবহৃত হয় না।

لام تاكيد بانون تاكيد ثقيلة درفعل مستقبل معروف
নিশ্চয়তাবোধক লাম ও তাশদীদবিশিষ্ট নূনযোগে কর্তৃবাচ্য ভবিষ্যতকালীন ক্রিয়া
تصريف – রুপান্তর;   معنى – অর্থ;  صيغة – রূপ;  جنس – লিঙ্গ;  شخص – পুরুষ;  واحد – একবচন;  تثنية – দ্বিবচন;  جمع – বহুবচন
تصريف অর্থ صغية جنس شخص
لَيَفْعَلَنَّ নিশ্চয়ই সে (একজন পুরুষ) করবে واحد مذكر غائب
لَيَفْعَلَانِّ নিশ্চয়ই তারা (দু'জন পুরুষ) করবে تثنية
لَيَفْعَلُنَّ নিশ্চয়ই তারা (সকল পুরুষ) করবে جمع
لَتَفْعَلَنَّ নিশ্চয়ই সে (একজন স্ত্রী) করবে واحد مؤنث
لَتَفْعَلَانِّ নিশ্চয়ই তারা (দু'জন স্ত্রী) করবে تثنية
لَيَفْعَلْنَانِّ নিশ্চয়ই তারা (সকল স্ত্রী) করবে جمع
لَتَفْعَلَنَّ নিশ্চয়ই তুমি (একজন পুরুষ) করবে واحد مذكر حاضر
لَتَفْعَلَانِّ নিশ্চয়ই তোমরা (দু'জন পুরুষ) করবে تثنية
لَتَفْعَلُنَّ নিশ্চয়ই তোমরা (সকল পুরুষ) করবে جمع
لَتَفْعَلِنَّ নিশ্চয়ই তুমি (একজন স্ত্রী) করবে واحد مؤنث
لَتَفْعَلَانِّ নিশ্চয়ই তোমরা (দু'জন স্ত্রী) করবে تثنية
لَتَفْعَلْنَانِّ নিশ্চয়ই তোমরা (সকল স্ত্রী) করবে جمع
لَاَفْعَلَنَّ নিশ্চয়ই আমি (একজন পুরুষ/স্ত্রী) করব واحد مؤنث/مذكر متكلم
لَنَفْعَلَنَّ নিশ্চয়ই আমরা (দুইজন/সকল, পুরুষ/স্ত্রী) করব جمع/تثنية مؤنث/مذكر
لام تاكيد بانون تاكيد ثقيلة درفعل مستقبل مجهول
নিশ্চয়তাবোধক লাম ও তাশদীদবিশিষ্ট নূনযোগে কর্মবাচ্য ভবিষ্যতকালীন ক্রিয়া
تصريف – রুপান্তর;   معنى – অর্থ;  صيغة – রূপ;  جنس – লিঙ্গ;  شخص – পুরুষ;  واحد – একবচন;  تثنية – দ্বিবচন;  جمع – বহুবচন
تصريف অর্থ صغية جنس شخص
لَيُفْعَلَنَّ নিশ্চয়ই সে (একজন পুরুষ) কৃত হবে واحد مذكر غائب
لَيُفْعَلَانِّ নিশ্চয়ই তারা (দু'জন পুরুষ) কৃত হবে تثنية
لَيُفْعَلُنَّ নিশ্চয়ই তারা (সকল পুরুষ) কৃত হবে جمع
لَتُفْعَلَنَّ নিশ্চয়ই সে (একজন স্ত্রী) কৃত হবে واحد مؤنث
لَتُفْعَلَانِّ নিশ্চয়ই তারা (দু'জন স্ত্রী) কৃত হবে تثنية
لَيُفْعَلْنَانِّ নিশ্চয়ই তারা (সকল স্ত্রী) কৃত হবে جمع
لَتُفْعَلَنَّ নিশ্চয়ই তুমি (একজন পুরুষ) কৃত হবে واحد مذكر حاضر
لَتُفْعَلَانِّ নিশ্চয়ই তোমরা (দু'জন পুরুষ) কৃত হবে تثنية
لَتُفْعَلُنَّ নিশ্চয়ই তোমরা (সকল পুরুষ) কৃত হবে جمع
لَتُفْعَلِنَّ নিশ্চয়ই তুমি (একজন স্ত্রী) কৃত হবে واحد مؤنث
لَتُفْعَلَانِّ নিশ্চয়ই তোমরা (দু'জন স্ত্রী) কৃত হবে تثنية
لَتُفْعَلْنَانِّ নিশ্চয়ই তোমরা (সকল স্ত্রী) কৃত হবে جمع
لَاُفْعَلَنَّ নিশ্চয়ই আমি (একজন পুরুষ/স্ত্রী) কৃত হব واحد مؤنث/مذكر متكلم
لَنُفْعَلَنَّ নিশ্চয়ই আমরা (দুইজন/সকল, পুরুষ/স্ত্রী) কৃত হব جمع/تثنية مؤنث/مذكر

لام تاكيد بانون تاكيد خفيفة درفعل مستقبل معروف
নিশ্চয়তাবোধক লাম ও জযমবিশিষ্ট নূনযোগে কর্তৃবাচ্য ভবিষ্যতকালীন ক্রিয়া

জ্ঞাতব্যঃ نون خفيفةنون ثقيلة এর সীগাহসমূহের মধ্যে অর্থগত কোন পার্থক্য নেই। কেবল শব্দগত পার্থক্য পরিলক্ষিত হয়। نون ثقيلة এর ক্ষেত্রে যেসকল স্থানে الف فاصلة আছে ঐ সকল সীগাহসমূহে نون خفيفة হয় না। কারণ সেখানে দুই সাকিন একত্রিত হয়ে পড়ে যা উচ্চারণ করা যায় না। ফলে نون خفيفة সীগাহর সংখ্যা দাড়ায় ৮টি, যথা- واحد و جمع متكلم – واحد مؤنث حاضر – واحد و جمع مذكر حاضر – واحد مؤنث غائب – واحد و جمع مذكر غائب

لام تاكيد بانون تاكيد خفيفة درفعل مستقبل معروف
নিশ্চয়তাবোধক লাম ও জযমবিশিষ্ট নূনযোগে কর্তৃবাচ্য ভবিষ্যতকালীন ক্রিয়া
تصريف – রুপান্তর;   معنى – অর্থ;  صيغة – রূপ;  جنس – লিঙ্গ;  شخص – পুরুষ;  واحد – একবচন;  تثنية – দ্বিবচন;  جمع – বহুবচন
تصريف অর্থ صغية جنس شخص
لَيَفْعَلَنْ নিশ্চয়ই সে (একজন পুরুষ) করবে واحد مذكر غائب
   
لَيَفْعَلُنْ নিশ্চয়ই তারা (সকল পুরুষ) করবে جمع
لَتَفْعَلَنْ নিশ্চয়ই সে (একজন স্ত্রী) করবে واحد مؤنث
   
   
لَتَفْعَلَنْ নিশ্চয়ই তুমি (একজন পুরুষ) করবে واحد مذكر حاضر
   
لَتَفْعَلُنْ নিশ্চয়ই তোমরা (সকল পুরুষ) করবে جمع
لَتَفْعَلِنْ নিশ্চয়ই তুমি (একজন স্ত্রী) করবে واحد مؤنث
   
   
لَاَفْعَلَنْ নিশ্চয়ই আমি (একজন পুরুষ/স্ত্রী) করব واحد مؤنث/مذكر متكلم
لَنَفْعَلَنْ নিশ্চয়ই আমরা (দুইজন/সকল, পুরুষ/স্ত্রী) করব جمع/تثنية مؤنث/مذكر
لام تاكيد بانون تاكيد خفيفة درفعل مستقبل مجهول
নিশ্চয়তাবোধক লাম ও জযমবিশিষ্ট নূনযোগে কর্মবাচ্য ভবিষ্যতকালীন ক্রিয়া
تصريف – রুপান্তর;   معنى – অর্থ;  صيغة – রূপ;  جنس – লিঙ্গ;  شخص – পুরুষ;  واحد – একবচন;  تثنية – দ্বিবচন;  جمع – বহুবচন
تصريف অর্থ صغية جنس شخص
لَيُفْعَلَنْ নিশ্চয়ই সে (একজন পুরুষ) কৃত হবে واحد مذكر غائب
   
لَيُفْعَلُنْ নিশ্চয়ই তারা (সকল পুরুষ) কৃত হবে جمع
لَتُفْعَلَنْ নিশ্চয়ই সে (একজন স্ত্রী) কৃত হবে واحد مؤنث
   
   
لَتُفْعَلَنْ নিশ্চয়ই তুমি (একজন পুরুষ) কৃত হবে واحد مذكر حاضر
   
لَتُفْعَلُنْ নিশ্চয়ই তোমরা (সকল পুরুষ) কৃত হবে جمع
لَتُفْعَلِنْ নিশ্চয়ই তুমি (একজন স্ত্রী) কৃত হবে واحد مؤنث
   
   
لَاُفْعَلَنْ নিশ্চয়ই আমি (একজন পুরুষ/স্ত্রী) কৃত হব واحد مؤنث/مذكر متكلم
لَنُفْعَلَنْ নিশ্চয়ই আমরা (দুইজন/সকল, পুরুষ/স্ত্রী) কৃত হব جمع/تثنية مؤنث/مذكر

অনুশীলনী – اَلتَّمْرِينُ

১। لام تاكيد و نون تاكيد ثقيلة و خفيفة – এর গঠন প্রণালী বর্ণনা কর।
২। مضارع এর কোন কোন صيغة তে نون ثقيلة এর পূর্বে الف হবে এবং কোন কোন صيغة এর পূর্বে ضمة و كسره ، فتحه হবে।
৩। কয়টি সীগাতে نون خفيفة হয়? উক্ত সীগাহগুলো কি কি?
৪। نون ثقيلةنون خفيفة এর মধ্যে পার্থক্য কি?
৫। صيغة অর্থ ও بحث বলঃ لَاَفْعَلَنَّ – لَتَذْهَبُنَّ – لَيَقْتُلُنَّ – لَتَضْرِبَنَّ
৬। আরবী বলঃ

(ক) তারা সকল (পুরুষ) অবশ্যই করবে।
(খ) নিশ্চয়ই আমরা যাব।
(গ) নিশ্চয়ই তুমি(একজন স্ত্রী) হত্যা করবে।
(ঘ) নিশ্চয়ই তারা (সকল পুরুষ) প্রহার করবে।
(ঙ) নিশ্চয়ই আমি কৃত হব।
(চ) নিশ্চয়ই আমরা বিজয়ী হব।

আদেশসূচক ক্রিয়া – امر

সংজ্ঞাঃ যে فعل দ্বারা কোন কাজ করার নির্দেশ বা অনুরোধ বুঝায় তাকে فعل امر বলে। যেমন- اِفْعَلْ – কর, اُكْتُبْ – লেখ, اُنْصُرْ – সাহায্য কর।
গঠন প্রণালীঃ فعل مضارع হতে فعل امر গঠন করতে হয়। مضارع এর غائب হতে امر غائب আর حاضر হতে امر حاضرمتكلم হতে امر متكلم এবং مضارع এর معروف হতে امر معروفمجهول হতে امر مجهول গঠিত হয়।
সাধারণতঃ امر حاضر এক নিয়মে এবং অন্য সব সীগা অন্য আর এক নিয়মে গঠিত হয়।

امر حاضر معروف এর গঠন প্রণালীঃ امر حاضر معروف গঠন করতে হলে مضارع حاضر معروف হতে علامت مضارع দূর করতে হবে। অতঃপর পরবর্তী হরফ হরকতযুক্ত না হরকত বিহীন তা লক্ষ্য করতে হবে। পরবর্তী হরফটি হরকতযুক্ত হলে শেষ বর্ণে জযম দিতে হবে। যেমন- تَعِدُ হতে عِدْ কিন্তু শেষ বর্ণ হরফে ইল্লাত (ا- و – ى) হলে তা বিলুপ্ত করতে হবে। যথা- تَقِىُ হতে قِ
পক্ষান্তরে علامت مضارع দূর করার পর পরবর্তী হরফ সাকিন হলে তৎপররর্তী অর্থাৎ ع কালিমায় فتحه (যবর) বা كسره (যের) বিশিষ্ট হলে শুরুতে একটি كسره (যের) বিশিষ্ট همزة وصل নিতে হবে। এবং শেষ বর্ণ হরফে ইল্লাত না হলে তাতে সাকিন দিতে হবে। যথা- تَضْرِبُ হতে أِضْرِبْتَفْتَحُ হতে أِفْتَحْ । আর শেষ বর্ণ হরফে ইল্লাত হলে উক্ত হরফ বিলুপ্ত করতে হবে। যথা- تَرْمِى হতে أِرْمِ এবং تَخْشٰى হতে أِخْشَ
আর শুধু সাকিন অবস্থায় ع কালিমা ضمة (পেশ) যুক্ত হলে শুরুতে একটি ضمة যুক্ত همزة وصل নিতে হবে এবং শেষ বর্ণ হরফে ইল্লাত না হলে সাকিন করতে হবে। যথা- تَنْصُرُ হতে أُنْصُرْ তবে শেষ বর্ণ হরফে ইল্লাত হলে তা বিলুপ্ত করতে হবে। যথা- تَدْعُو হতে أُدْعُ আর مضارع এর সীগাহ থেকে نون اعرابى বিদূরিত হবে। যেমন- تَضْرِبُونَ হতে أِضْرِبُوا

امر غائب – امر حاضر مجهولامر متكلم এর গঠন প্রণালীঃ
امر حاضر معروف ব্যতীত امر غائب معروف و مجهول- امر حاضر مجهول এবং امر متكلم معروف و مجهول গঠন করতে হলে مضارع এর শুরুতে একটি كسره যুক্ত لام امر (আদেশ সূচক লাম) নিতে হবে। আর শেষ বর্ণে হরফে ইল্লাত না থাকলে সাকিন করতে হবে। যেমন- يَفْعَلُ হতে لِيَفْعَلْ কিন্তু শেষ বর্ণে হরফে ইল্লাত থাকলে উহা বিদূরিত করতে হবে। যথা- يَدْعُو হতে لِيَدْعُيَرْمِى হতে لِيَرْمِ আর نون اعرابى বিলুপ্ত হবে। যথা- يَضْرِبُونَ হতে لِيَضْرِبُوا
উল্লেখ্য مضارع শেষে যেমন نون تاكيد আসে তেমনি امر এর শেষেও نون تاكيد আসে। যেমন- أِفْعَلَنَّ এবং لِيَفْعَلَنَّ

امر حاضر معروف
মধ্যমপুরুষ কর্তৃবাচ্য আদেশসূচক ক্রিয়া
تصريف – রুপান্তর;   معنى – অর্থ;  صيغة – রূপ;  جنس – লিঙ্গ;  شخص – পুরুষ;  واحد – একবচন;  تثنية – দ্বিবচন;  جمع – বহুবচন
تصريف অর্থ صغية جنس
أِفْعَلْ তুমি (একজন পুরুষ) কর واحد مذكر
أِفْعَلَا তোমরা (দু'জন পুরুষ) কর تثنية
أِفْعَلُوا তোমরা (সকল পুরুষ) কর جمع
أِفْعَلِى তুমি (একজন স্ত্রী) কর واحد مؤنث
أِفْعَلَا তোমরা (দু'জন স্ত্রী) কর تثنية
أِفْعَلْنَ তোমরা (সকল স্ত্রী) কর جمع
 
امر غائب معروف
নামপুরুষ কর্তৃবাচ্য আদেশসূচক ক্রিয়া
تصريف – রুপান্তর;   معنى – অর্থ;  صيغة – রূপ;  جنس – লিঙ্গ;  شخص – পুরুষ;  واحد – একবচন;  تثنية – দ্বিবচন;  جمع – বহুবচন
تصريف অর্থ صغية جنس
لِيَفْعَلْ সে (একজন পুরুষ) করুক বা তার করা উচিত واحد مذكر
لِيَفْعَلَا তারা (দু'জন পুরুষ) করুক বা তাদের করা উচিত تثنية
لِيَفْعَلُوا তারা (সকল পুরুষ) করুক বা তাদের করা উচিত جمع
لِتَفْعَلْ সে (একজন স্ত্রী) করুক বা তার করা উচিত واحد مؤنث
لِتَفْعَلَا তারা (দু'জন স্ত্রী) করুক বা তাদের করা উচিত تثنية
لِيَفْعَلْنَ তারা (সকল স্ত্রী) করুক বা তাদের করা উচিত جمع
 
امر متكلم معروف
উত্তমপুরুষ কর্তৃবাচ্য আদেশসূচক ক্রিয়া
تصريف – রুপান্তর;   معنى – অর্থ;  صيغة – রূপ;  جنس – লিঙ্গ;  شخص – পুরুষ;  واحد – একবচন;  تثنية – দ্বিবচন;  جمع – বহুবচন
تصريف অর্থ صغية جنس
لِاَفْعَلْ আমার (একজন পুরুষ/স্ত্রী) করা উচিত واحد مؤنث/مذكر
لِنَفْعَلْ আমাদের (দু'জন/সকল, পুরুষ/স্ত্রী) করা উচিত جمع/تثنية مؤنث/مذكر
 
امر حاضر مجهول
মধ্যমপুরুষ কর্মবাচ্য আদেশসূচক ক্রিয়া
تصريف – রুপান্তর;   معنى – অর্থ;  صيغة – রূপ;  جنس – লিঙ্গ;  شخص – পুরুষ;  واحد – একবচন;  تثنية – দ্বিবচন;  جمع – বহুবচন
تصريف অর্থ صغية جنس
لِتُفْعَلْ তুমি (একজন পুরুষ) কৃত হও واحد مذكر
لِتُفْعَلَا তোমরা (দু'জন পুরুষ) কৃত হও تثنية
لِتُفْعَلُوا তোমরা (সকল পুরুষ) কৃত হও جمع
لِتُفْعَلِى তুমি (একজন স্ত্রী) কৃত হও واحد مؤنث
لِتُفْعَلَا তোমরা (দু'জন স্ত্রী) কৃত হও تثنية
لِتُفْعَلْنَ তোমরা (সকল স্ত্রী) কৃত হও جمع
 
امر غائب مجهول
নামপুরুষ কর্মবাচ্য আদেশসূচক ক্রিয়া
تصريف – রুপান্তর;   معنى – অর্থ;  صيغة – রূপ;  جنس – লিঙ্গ;  شخص – পুরুষ;  واحد – একবচন;  تثنية – দ্বিবচন;  جمع – বহুবচন
تصريف অর্থ صغية جنس
لِيُفْعَلْ সে (একজন পুরুষ) কৃত হউক واحد مذكر
لِيُفْعَلَا তারা (দু'জন পুরুষ) কৃত হউক تثنية
لِيُفْعَلُوا তারা (সকল পুরুষ) কৃত হউক جمع
لِتُفْعَلْ সে (একজন স্ত্রী) কৃত হউক واحد مؤنث
لِتُفْعَلَا তারা (দু'জন স্ত্রী) কৃত হউক تثنية
لِيُفْعَلْنَ তারা (সকল স্ত্রী) কৃত হউক جمع
 
امر متكلم مجهول
উত্তমপুরুষ কর্মবাচ্য আদেশসূচক ক্রিয়া
تصريف – রুপান্তর;   معنى – অর্থ;  صيغة – রূপ;  جنس – লিঙ্গ;  شخص – পুরুষ;  واحد – একবচন;  تثنية – দ্বিবচন;  جمع – বহুবচন
تصريف অর্থ صغية جنس
لِاُفْعَلْ আমি (একজন পুরুষ/স্ত্রী) কৃত হই বা আমার কৃত হওয়া উচিত واحد مؤنث/مذكر
لِنُفْعَلْ আমারা (দু'জন/সকল, পুরুষ/স্ত্রী) কৃত হই বা আমাদের কৃত হওয়া উচিত جمع/تثنية مؤنث/مذكر
 

Page 1
Pages : 1 2 3

One thought on “Learn Arabic”

  1. মাসা আল্লাহ, যিনি এই ওয়েব সাইটের জন্য অধিক পরিশ্রম করেছে? আল্লহ্ তাহার নেক হায়াত দান করুন? ধন্যবাদ আপনাদের সকলকে যারা এই ওয়েব সাইটের জন্য কাজ করেছেন? এমন একটি ওয়েব সাইটি খুজেছি

    View Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Islamic Website